বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটুক্তির অভিযোগে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আরেক শিক্ষার্থী বহিষ্কার

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে কটুক্তি করায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের এক ছাত্রকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

বুধবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস এম আব্দুল লতিফ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, আরবী ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র আশিকুল ইসলাম পাটোয়ারী ফেসবুকে যে মন্তব্য করেছে তা বঙ্গবন্ধুর ভাবমূর্তি নষ্ট করেছে। একইসাথে বিশ্ববিদ্যালয়েরও ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে। তাই তাকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

একইসাথে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার ৭ কার্যদিবসের মধ্যে কেন তাকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে না মর্মে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে।

ঘটনা তদন্তে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. পরেশ চন্দ্র বমর্ণকে আহবায়ক করে তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

ওই শিক্ষার্থী ছাত্র মৈত্রীর বিশ্ববিদ্যালয় শাখার কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য। এ ঘটনায় তাকে দল থেকে স্থায়ী বহিষ্কার করেছে ছাত্র মৈত্রী। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র মৈত্রীর সভাপতি আব্দুর রউফ।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. রাশিদ আসকারী বলেন, জাতির পিতার যেকোনো অবমাননা কোনভাবেই ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সহ্য করবে না। কটুক্তিকারীকে সমায়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর তার বিরুদ্ধে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডের বিচারকে ‘কাসুন্দি ঘাটা’ বলায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্রী সানজিদা সুলতানা ছন্দকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

Previous post করোনা সংকট মোকাবেলায় একসাথে কাজ করবে তুরস্ক ও পাকিস্তান
Next post লকডাউনের মধ্যেই ধুমধাম করে সরকারি কর্মকর্তার বিয়ে!