রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ডিজইনফেকশন বুথ স্থাপন সেনাবাহিনীর

করোনার সংক্রমণ ধরা পড়ায় ঝুঁকিতে রয়েছে বৃহত্তম রোহিঙ্গা আশ্রয়শিবিরসমূহ। তাই করোনা শনাক্তের পর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের প্রবেশ পথে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় ডিজইনফেকশন বুথ স্থাপন করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। এই বুথের মাধ্যমে সকল গাড়ি জীবাণুমুক্ত করে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে প্রবেশ করানো হচ্ছে।

গত দুই দিনে তিনজন রোহিঙ্গার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। এ পরিস্থিতিতে উখিয়া ও টেকনাফ এলাকায় ৩৪টি ক্যাম্পে মিয়ানমার থেকে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত ১১ লাখ রোহিঙ্গা চরম শঙ্কায় পড়েছে। তাই করোনা ছড়িয়ে পড়া রোধে সেনা সদস্যরা সচেতনতামূলক তৎপরতা চালাচ্ছে।

রামু সেনানিবাস সূত্র জানিয়েছে, করোনা রোধে ক্যাম্পে সামাজিক দূরত্ব, লকডাউন নিশ্চিতে সেনাবাহিনীর টহল ও চেকপোস্টের কার্যক্রম বহুগুনে বৃদ্ধি করা হয়েছে। রোহিঙ্গা ক্যাম্পের প্রবেশদ্বার উখিয়াতে ডিজইনফেকশন বুথ স্থাপন করে সকল গাড়ি জীবাণুমুক্ত করে প্রবেশ করানো হচ্ছে।

মানবতার টানে অতীতের সব প্রাকৃতিক দুর্যোগের মতোই করোনা মহামারি রোধে নির্ভীকচিত্তে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। সামাজিক দূরত্ব বা হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিতের বৃত্তের ভেতরই নিজেদের সীমাবদ্ধ রাখেনি। মানবিক হৃদয় নিয়েই কর্মহীন, অভাবী ও সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে নিজেদের সমর্পণ করছেন।

Previous post ধান-চাল সংগ্রহে দুর্নীতি হলেই ব্যবস্থা: দুদক চেয়ারম্যান
Next post পশ্চিম তীরকে অধিভুক্ত করলে ইহুদিবাদী ইসরাইলকে কঠিন জবাব দেওয়া হবে: জর্ডান