বাজেটে জনগণের স্বার্থ উপেক্ষা করে দুর্নীতিবাজদের স্বার্থ রক্ষা করা হয়েছে: নেজামে ইসলাম পার্টি

বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির আমীর মাওলানা সারওয়ার কামাল আজিজী এবং মহাসচিব মাওলানা মুসা বিন ইজহার ২০২০-২১ অর্থবছরের জন্য ঘোষিত বাজেটকে জনস্বার্থ বিরোধী আখ্যা দিয়ে বলেছেন, এ বাজেট বাস্তবায়িত হলে ইন্টারনেট পরিসেবা ও মোবাইল ফোনের ব্যয়সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য বৃদ্ধি পাবে। এর মাধ্যমে মানুষের জীবনযাত্রা দুর্বিষহ হয়ে উঠবে।

শুক্রবার (১২ জুন) সংবাদমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তারা এসব কথা বলেন।

নেতৃদ্বয় বলেন, ঘোষিত বাজেটে রাজস্ব আদায়ের যে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে তা কল্পনা বিলাসী। ৩ লাখ ৭৮ হাজার কোটি টাকার এই লক্ষ্যমাত্রা পূরণে জনগণের উপর অতিরিক্ত করের বোঝা চাপানোর পথ সুগম করা হয়েছে। এমনিতে দারিদ্রতা ও করোনা পরিস্থিতির কারণে মানুষের জীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে। তার উপর এই বাজেট গরিবদের জন্য মরার উপর খাঁড়ার ঘা হবে।

তারা বলেন, বাজেটে এক লক্ষ নব্বই হাজার কোটি টাকার ঘাটতি পূরণের জন্য দেশি-বিদেশি খাত থেকে চড়া সুদে ঋণ নিতে হবে। এবং এর মাধ্যমে দেশের আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে দেউলিয়াত্বের পথে ঠেলে দেওয়ার পথ তৈরি হবে। বাজেটে কালো টাকা সাদা করার সুযোগ দিয়ে ব্যাংক লুটেরা ও দুর্নীতিবাজদের অপকর্মকে উৎসাহিত করা হয়েছে। যা একটি কল্যাণমূলক রাষ্ট্রের জন্য কখনোই সুখকর নয়।

নেতৃদ্বয় আরও বলেন, বাজেটে ৮.২ প্রবৃদ্ধির যে হার নির্ধারণ করা হয়েছে তা সম্পূর্ণ কল্পনাপ্রসূত। বোদ্ধাদের মতে, এই হার অর্জন করা কোনভাবেই সম্ভব নয়। সর্বোপরি কথার ফুলঝুরির এবং দরিদ্র জনগোষ্ঠীর স্বার্থবিরোধী ও লুটেরা শ্রেণীর স্বার্থরক্ষাকারী এই বাজেটকে আমরা প্রত্যাখ্যান করছি।

Previous post এই বাজেট অন্তঃসারশূন্য কল্পনাপ্রসূত কথার ফুলঝুরি: বিএনপি
Next post বাজেটে অর্থনৈতিক শৃঙ্খলা ও জনবান্ধব সংশোধনী আনতে জমিয়তের আহ্বান