পশ্চিম তীর ‘আত্মসাত’ মানে ব্যাপক সংঘাত; ইহুদিবাদী ইসরায়েলকে জর্ডানের হুঁশিয়ারি

পশ্চিম তীর আত্মসাত করলে ইহুদিদের অবৈধ রাষ্ট্র ইসরায়েলকে ব্যাপক সংঘাতে জড়িয়ে পড়তে হবে বলে সতর্ক করে দিয়েছে জর্ডান। খবর আলজাজিরার।

ইহুদিবাদী ইসরায়েল চাইছে বিভিন্ন অঞ্চল ও জর্ডান উপত্যকাটি নিজেদের অন্তর্ভুক্ত করে নিতে। তবে ইসরায়েলের দুর্নীতির অভিযোগে বিচারাধীন কট্টরপন্থি নেতা বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু এক বছরের টানা হেঁচড়ার পর আরেকবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন এই ‘দখল প্রক্রিয়া’কে টোপ হিসেবে ব্যবহার করে, যা গোঁড়া ইহুদিদের কাছে ‘জাতীয়তাবাদী চেতনা’ নামে পরিচিত।

বাদশাহ দ্বিতীয় আবদুল্লাহ্ শুক্রবার (১৫ মে) জার্মান পত্রিকা ডার স্পেইজেলের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে বলেন, যেসব নেতা একরাষ্ট্রিক সমাধানের পক্ষে কথা বলছেন, তারা বুঝতে পারছেন না কী বলছেন, অথচ কী ঘটতে চলেছে।

ফিলিস্তিনের জাতীয় কর্তৃপক্ষকে (প্যালেস্টাইনিয়ান ন্যাশনাল অথরিটি) অচল করে দিয়ে কী লাভ হবে প্রশ্ন তুলে তিনি বলেন, আগামী জুলাইতে ইহুদিবাদী ইসরায়েল যদি সত্যি পশ্চিম তীরকে নিজেদের অংশ করে নেওয়ার দুরাকাঙ্ক্ষা বাস্তবায়িত করতে চায়, তাহলে এ অঞ্চলে সংঘাত চরমে পৌঁছাবে। জর্ডানের হাশেমি রাজ্য তা বসে বসে দেখবে না।

আবদুল্লাহ্ বলেন, আমি হুমকি দিতে চাই না। ভীতিকর কোনো পরিবেশ তৈরি করার চেষ্টাও নেই আমার কথায়। তবে আমরা সব দিক নিয়ে বিবেচনা করে দেখছি। আমরা ইউরোপের অনেক দেশসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সঙ্গে একমত যে, মধ্যপ্রাচ্যে শক্তি প্রয়োগের মাধ্যমে সমাধানের চেষ্টা করা ঠিক হবে না।

Previous post চুয়াডাঙ্গায় ম্যাজিস্ট্রেট-চিকিৎসকসহ নতুনকরে আরও ৩৫ জনের করোনা শনাক্ত
Next post দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত আরও ৯৩০ জন