শহীদ বাবরি মসজিদ মামলার রায় নিয়ে মোদি : দেশে বিরাজমান পরিস্থিতির দায় সবাইকে নিতে হবে

নভেম্বর ৮, ২০১৯

আগামী সপ্তাহেই আলোচিত শহীদ বাবরি মসজিদ মামলার রায় দিতে পারে ভারতের শীর্ষ আদালত।

এর আগে গত বুধবার ভারতের হিন্দুত্ববাদি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দেশে শান্তি বজায় রাখতে এ ইস্যুতে অপ্রয়োজনীয় মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকতে মন্ত্রীদের পরামর্শ দিয়েছেন।

ভারতের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ ১৭ নভেম্বর অবসর নেবেন। এর আগে সুপ্রিম কোর্ট বাবরি মসজিদ ইস্যুতে রায় দেবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বুধবার মন্ত্রিসভা বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী মোদি বলেন, দেশে যে অবস্থা বিরাজ করছে, এর দায় সবাইকে নিতে হবে। এমনকি সরকারকেও। এ জন্য মন্ত্রীদের উসকানিমূলক মন্তব্য এড়ানো উচিত।

নয়াদিল্লিভিত্তিক অল ইন্ডিয়া রেডিওর ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানে গত ২৭ অক্টোবর মোদি পুরোনো দিন ও ঘটনার স্মৃতিচারণা করেন। তিনি জানান, অযোধ্যার বিতর্কিত জমির বিষয়ে ২০১০ সালে এলাহাবাদ হাইকোর্টের রায় দেওয়ার সময় তৎকালীন সরকার, রাজনৈতিক দলগুলো এবং সুশীল সমাজ কীভাবে বিড়ম্বনা সৃষ্টির চেষ্টা করেছিল। ঐক্যবদ্ধ কণ্ঠ কীভাবে দেশকে শক্তিশালী করতে পারে, তার উদাহরণ হিসেবেই এই কথার উল্লেখ করেন নরেন্দ্র মোদি।

এদিকে শহীদ বাবরি মসজিদ মামলার রায় ঘোষণার আগে উত্তর প্রদেশর অযোধ্যাসহ সারা দেশে ব্যাপক নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর বাবরি মসজিদ ধ্বংস করে উগ্র হিন্দুত্ববাদীরা। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সে সময় সৃষ্ট সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় প্রায় তিন হাজারের বেশি মানুষ নিহত হন।

সর্বশেষ সংবাদ

নিজেদের সীমান্ত থেকে ভারতীয় সেনা হটানোর শপথ নিলেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী

আসামিদের বাঁচাতে ধর্ষণের শিকার ছাত্রীকে বানালেন যৌনকর্মী!

১৯ নভেম্বর বাণিজ্য মন্ত্রণালয় অভিমুখে গণমিছিল সফলের আহ্বান মুফতী ফয়জুল করীমের

উইঘুর মুসলিমদের নির্যাতনের কারণে জার্মানিতে চীনা সৈনিকদের প্রশিক্ষণ না দেয়ার আহ্বান

এবার আগ্রার নাম পরিবর্তন করে ‘অগ্রবন’ রাখছে হিন্দুত্ববাদী মোদি সরকার

ইহুদিবাদী অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইলি বাহিনীর গুলিতে চোখ হারালেন ফিলিস্তিনি সাংবাদিক

নেত্রী শেখ হাসিনার নামে বিশ্ববিদ্যালয় হয়েছে, এতে বাঙালি গর্বিত: মোস্তাফা জব্বার

পদ্মা সেতু: মঙ্গলবার বসছে ১৬তম স্প্যান