বাড়ি ছাড়ার নোটিশ দিলে বা হয়রানি করলে ভবনের বিদ্যুৎ-গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন

মহামারি করোনাভাইরাসের (কোভিড ১৯) কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে কাউকে বাড়ি ছাড়ার নোটিশ দিলে বা হয়রানি করলে ভবন মালিকের গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার ঘোষণা দিয়েছে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়।

সোমবার (২০ এপ্রিল) মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মীর মোহাম্মদ আসলাম উদ্দিন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

রাজধানীসহ সারাদেশে অবিলম্বে এই আদেশ কার্যকর করা হবে। এজন্য হয়রানির তথ্য জানাতে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নাম ও ফোন নম্বরসহ একটি তালিকাও প্রকাশ করেছে মন্ত্রণালয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) মোকাবেলায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী এবং সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জনগণকে সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। অপরদিকে সরকারি নির্দেশনায় করোনা আক্রান্ত মানুষ হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন যাতে করোনাভাইরাস ব্যাপকভাবে ছড়াতে না পারে।

তবে শোনা যাচ্ছে, কিছু বাড়িওয়ালা এ ধরনের নিবেদিতপ্রাণ চিকিৎসা সেবা দানকারী ব্যক্তিদেরকে এবং হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা করোনা আক্রান্ত মানুষকে বাড়ি ছেড়ে দেওয়ার জন্য হয়রানিমূলক আচরণ করছেন, যা খুবই দুঃখজনক ও অমানবিক। এসময় এসকল নিবেদিতপ্রাণ চিকিৎসাসেবা দানকারী ও করোনা আক্রান্তদের পাশে দাঁড়ানো নৈতিক ও মানবিক দায়িত্ব।

মন্ত্রণালয়ের বিদ্যুৎ বিভাগ এবং জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের সিদ্ধান্তে জানানো হয়েছে, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেবাদানকারী চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী ও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি, জরুরি সেবাদানকারী ব্যক্তি, সংবাদকর্মী এবং করোনা আক্রান্ত হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা কোনো ব্যক্তিকে কোনো বাড়ি মালিক হয়রানি করলে ওই বাড়ি মালিকের বা হয়রানিকারীর বিদ্যুৎ ও গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড, বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড (ও পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিসমূহ), ডিপিডিসি, ডেসকো, নেসকো, ওজোপাডিকোর ওয়েবসাইটে দেওয়া কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষ ও গ্রাহক সেবাকেন্দ্রের টেলিফোন নম্বরে যোগাযোগ করে এ ধরনের হয়রানির ঘটনার তথ্য জানানো যেতে পারে। এধরনের অভিযোগ পাওয়া গেলে যাচাই করে ওই বাড়ির মালিকের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পাশাপাশি ওয়েবসাইটে দেওয়া কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষ ও গ্রাহক সেবা কেন্দ্রের টেলিফোন নম্বরে যোগাযোগ করে হয়রানির তথ্য জানানো হলে সংশ্লিষ্ট হয়রানিকারীর গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্নের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।