বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইনে পরীক্ষা ও ভর্তি বন্ধের সিদ্ধান্ত বহাল

করোনা ভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইনে পরীক্ষা গ্রহণ, মূল্যায়ন ও শিক্ষার্থী ভর্তির কার্যক্রম বন্ধ রাখতে যে সিদ্ধান্ত দিয়েছিল পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত সেটি বহাল থাকবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)।

শুক্রবার গণমাধ্যমে ইউজিসির জনসংযোগ ও তথ্য অধিকার বিভাগের পরিচালক ড. শামসুল আরেফিনের পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বিশ্বমহামারী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবকালীন সময়ে বাংলাদেশের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর অনলাইনে পরীক্ষা গ্রহণ, মূল্যায়ন ও শিক্ষার্থী ভর্তির কার্যক্রম বন্ধ রাখতে ইউজিসির আহ্বান পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত বহাল থাকবে। করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯)) এর প্রাদুর্ভাব বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১০টি দেশ ও অঞ্চলে ইতিমধ্যে ব্যাপকভাবে বিস্তার লাভ করেছে। ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জসহ দেশের ২৭টি জেলাকে ইতিমধ্যে লকডাউন করা হয়েছে।

এতে বলা হয়, দেশের সব শ্রেণি ও পেশার জনগণকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার বিষয়টি সরকার কর্তৃক বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। ঢাকার সঙ্গে বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ের সব ধরনের যোগাযোগ সম্পূর্ণভাবে বিচ্ছিন্ন রয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সব শ্রেণির ক্লাস ও পরীক্ষা গ্রহণ এবং মূল্যায়নসহ সব শিক্ষা কার্যক্রম অনির্দিষ্টকালের জন্য ইতিমধ্যে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বর্তমানে বাংলাদেশে কভিড-১৯ এর ভয়াবহতা পূর্বের চেয়ে আরও বিস্তৃত হচ্ছে। কমিশন মনে করে যে, উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে পরীক্ষা গ্রহণ ও সামার সেমিস্টারে ভর্তি কার্যক্রম চালু রাখার মতো কোনো অনুকূল পরিবেশ বিদ্যমান নেই। বর্ণিতাবস্থায়, উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বিপুলসংখ্যক শিক্ষার্থীর নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্যগত বিষয়ে কমিশন ও সরকার গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। চলমান পরিস্থিতির ভয়াবহতা বিবেচনায় রেখে কমিশন কর্তৃক গত ৬ এপ্রিলে জারিকৃত গণবিজ্ঞপ্তি পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত বহাল থাকবে বলে কমিশন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। উদ্ভূত পরিস্থিতির উন্নয়ন ঘটলে কমিশন কর্তৃক বর্ণিত বিষয়ে পরবর্তীতে পরামর্শ/নির্দেশনা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রেরণ করা হবে।

এতে আরও বলা হয়, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ও ব্যাপক বিস্তার রোধকল্পে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও সরকার কর্তৃক জারিকৃত নির্দেশনা যথাযথভাবে প্রতিপালন ও অনুসরণ করার জন্য উচ্চশিক্ষা পরিবারের সবাইকে পুনরায় অনুরোধ জানানো হল।