ভারতের সংসদে এমপিদের কণ্ঠে ‘আজাদি’ স্লোগান!

ফেব্রুয়ারি ৩, ২০২০ । আন্তর্জাতিক ডেস্ক


নজিরবিহীন ঘটনা ঘটল ভারতের লোকসভায়। রাজপথ ছেড়ে এবার ‘আজাদি’ স্লোগানে সরগরম হলো ভারতের সংসদ।

সোমবার (৩ ফেব্রুয়ারি) লোকসভা অধিবেশনের শুরুতেই কংগ্রেস সাংসদরা মুসলিম
বিদ্বেষ নাগরিকত্ব আইন সিএএ ও এনআরসি বিরোধী পোস্টার হাতে নিয়ে বিক্ষোভে শামিল হন। মূহুর্মূহু স্লোগান উঠতে থাকে-‘এনআরসি সে আজাদি, সিএএ সে আজাদি।’ এর নেতৃত্বে ছিলেন আসামের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ও কংগ্রেসের বর্ষীয়ান নেতা তরুণ গগৈ।

জামিয়া মিল্লিয়া, শাহিনবাগে পরপর উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের গুলি হামলার ঘটনা নিয়েও সরব হন তারা। এসবের জেরে অধিবেশনের প্রশ্নোত্তর পর্বের পর আর লোকসভার কাজ এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়নি। দিনের প্রথমার্ধ্ব অধিবেশন মুলতবি হয়ে যায়।

তরুণ বামনেতা কানহাইয়া কুমারের হাত ধরে ভারতবাসী শুনেছিলেন ‘আজাদি’ স্লোগান।
মুসলিম বিরোধী নাগরিকত্ব আইন সিএএ-এনআরসি নিয়ে উত্তপ্ত পরিস্থিতিতে দিল্লির রাজপথ থেকে তা ছড়িয়ে পড়েছে ভারতের সর্বত্র। কেন্দ্রীয় হিন্দুত্ববাদী বিজেপি সরকারের বিরোধিতায় এখন সর্বত্রই কানহাইয়ার স্বর প্রতিধ্বনিত হচ্ছে। তবে নজিরবিহীনভাবে এবার আন্দোলনের সেই ধারালো স্লোগান ঢুকে পড়ল সংসদের অভ্যন্তরে।

সবচেয়ে বড় বিরোধী দল কংগ্রেস সাংসদরাই এবার তুললেন ‘আজাদি’ স্লোগান। সোমবার অধিবেশনের শুরুতেই লোকসভা কক্ষ মুখর হয়ে উঠল-‘এনআরসি সে আজাদি, সিএএ সে আজাদি’-এই বাক্যবন্ধে।

আজ কংগ্রেসের প্রতিবাদের তালিকা ছিল আরও লম্বা। এক ঘণ্টার প্রশ্নোত্তর পর্বে আজ ছিল অর্থ বিষয়ক আলোচনা। প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছিলেন অর্থ প্রতিমন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর। কিন্তু যতবারই অনুরাগ বলার জন্য উঠে দাঁড়াচ্ছিলেন, ততবারই স্লোগান তুলে তাঁকে বক্তব্য পেশ করতে বাধা দিচ্ছিলেন কংগ্রেস সাংসদরা।

এদিকে, লাগাতার আজাদী শ্লোগানের জেরে প্রশ্নোত্তর পর্বের সময় শেষ হয়ে যাওয়ায় প্রশ্ন করতে পারেননি হায়দরাবাদের সাংসদ আসাদউদ্দিন ওয়াইসি। পরে তিনি সংসদের বাইরে বেরিয়ে জামিয়ার ছাত্রদের সমর্থন করে বলেন, ছেলেমেয়েদের আন্দোলনের পাশে আছি।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন