যশোরে খাদ্যের দাবিতে বিক্ষোভ

লকডাউনের মধ্যেই খাদ্যের দাবিতে আজ সকালে যশোর-ঢাকা মহাসড়কের দুটি স্থানে অবস্থান নিয়ে কয়েকশ’ নারী-পুরুষ-শিশু বিক্ষোভ করেছে। কাজের অভাবে তারা না খেয়ে আছেন বলে সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেছেন।

আজ মঙ্গলবার সকাল ৮টার দিকে মহাসড়কটির বাহাদুরপুর বাজারে অবস্থান নেন দুই শতাধিক নারী-পুরুষ-শিশু। আর বাহারদুরপুর থেকে সামান্য দূরে বাঁশতলা এলাকায় একই মহাসড়কের ওপর আরও শতাধিক নারী-পুরুষ অবস্থান নেন। দুই স্থান থেকে বিক্ষোভকারীরে খাদ্যের দাবিতে শ্লোগান দিতে থাকেন। বিক্ষুব্ধরা অভিযোগ করেন, এক মাসের বেশি সময় তারা ঘরবন্দি। কাজ নেই। অথচ এখনো পর্যন্ত সরকারি-বেসরকারি কোন সহায়তা তারা পাননি। বাচ্চা-কাচ্চা নিয়ে অর্ধাহারে-অনাহারে দিন কাটছে তাদের।

তারা বলেন যে, তাদের সবাই রোজা থাকছেন, কিন্তু সেহরি ও ইফতারে খাওয়ার মতো কিছুই তাদের ঘরে নেই।

তারা আরও বলেন, স্থানীয় নওয়াপাড়া ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে তারা খাদ্য সহায়তা চেয়েছিলেন। কিন্তু নিরাশ হতে হয়েছে। স্থানীয় ইউপি মেম্বরও জানিয়ে দিয়েছেন, তার কাছে যে ত্রাণ এসেছিল, তা বন্টন করা হয়ে গেছে। কোন উপায় না পেয়ে বাধ্য হয়ে তারা রাস্তায় নেমেছেন।

বিক্ষোভের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান সেনা ও পুলিশ সদস্যরা। ছিলেন যশোরের রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টর (আরডিসি) কেএম আবু নওশাদও। তারা বিক্ষুব্ধ নারী-পুরুষের কথা শোনেন। এক পর্যায়ে কেএম আবু নওশাদ বিক্ষুব্ধদের আশ্বস্ত করেন যে, দ্রুত তাদের তালিকা তৈরি করে খাদ্য সহায়তার জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন। আরডিসির কাছ থেকে খাদ্যের ব্যাপারে আশ্বস্ত হওয়ায় প্রায় আড়াই ঘণ্টা পর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বিক্ষুব্ধরা মহাসড়ক ত্যাগ করেন।