যুগ যুগ ধরে বেঁচে থাকুক ইনসাফ

মারুফ আল মাহমুদ | শিক্ষার্থী: জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা


বাংলাদেশের ইসলামী ঘরনার প্রথম ও জনপ্রিয় অনলাইন পত্রিকা ইনসাফ হাঁটি-হাঁটি পা-পা করে অর্ধযুগ পেরিয়েছে। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে পত্রিকাটির সব সাংবাদিক এবং যারা এ পত্রিকা প্রকাশের সঙ্গে যুক্ত আছেন তাদের সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাচ্ছি। পাশাপাশি ইনসাফ টুয়েন্টিফোরের পাঠক ও শুভানুধ্যায়ীদেরও অর্ধযুগপূর্তির শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।

ইনসাফ বাংলাদেশের ইসলামী ঘরনার পাঠকের কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয় অনলাইন পত্রিকার স্থান দখল করে নিয়েছে। সংবাদ পরিবেশনের ক্ষেত্রে ইনসাফ টুয়েন্টিফোর সবসময় বস্তুনিষ্ঠতা বজায় রাখতে চেষ্টা করে। একই সঙ্গে সত্য তুলে ধরতে আপোষহীন ভূমিকা পালন করে আসছে ইনসাফ।

এ পত্রিকার প্রতিবেদনে দল-মত নির্বিশেষে নিরপেক্ষ দৃষ্টিভঙ্গি বজায় রাখায় সবার প্রশংসা অর্জন করেছে। প্রতিষ্ঠার পর অল্পদিনে জনপ্রিয়তা অর্জন করতে পেরেছে। এবং অর্ধযুগ পেরিয়েও তা ধরে রেখেছে।
সেই জনপ্রিয়তার মূল কারণ সংবাদ পরিবেশনে পত্রিকাটির আপসহীন অবস্থান ধরে রাখা।

হলুদ মিডিয়ার দৌরাত্ম্যে যখন ইসলামি অঙ্গন দিশেহারা। একের পর এক মিডিয়া হামলায় জর্জরিত হচ্ছিলাম আমরা! ঠিক তখনি মরুভূমির বুকে মিডিয়ার অঙ্কুর রোপন করেছিলো ইনসাফ সম্পাদক সাইয়্যেদ মাহফুজ খন্দকার ভাই। সেই গাছ আজ অর্ধযুগ পেরিয়ে মহীরুহে রুপান্তরিত হচ্ছে। ইনশাআল্লাহ, ভবিষৎে ইনসাফ হবে ইসলামি ঘরনার মিডিয়ার দিকপাল।

আগামী দিনেও ইনসাফের এর এ ধারা অব্যাহত থাকবে এবং ইসলামী অঙ্গনে ইনসাফ মিডিয়ার অবস্থানকে শক্তিশালী ও দৃঢ় করবে এটাই আমার বিশ্বাস। আমি ইনসাফ টুয়েন্টিফোর ডটকমের সর্বাঙ্গীণ সফলতা কামনা করি।

Previous post অন্যান্য সংবাদমাধ্যমের তুলনায় ইনসাফ ব্যতিক্রম
Next post সততা ও সাহসের গৌরবময় পথচলা