যৌতুকের দাবিতে স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ!

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় যৌতুকের দাবিতে নাসরিন খাতুন ওরফে শারমিন (২০) নামের এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার লিখিত অভিযোগ করেছেন তার পরিবার।

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, তাড়াশ উপজেলার বারুহাঁস ইউনিয়নের কাজিপুর গ্রামের সাইফুল ইসলামের মেয়ে শারমিনের সাথে উল্লাপাড়া উপজেলার প্রতাপ গ্রামের সাখোয়াত হোসেনের ছেলে আব্দুস সালাম (৩৫) এর সাথে ২ বছর পূর্বে বিয়ে হয়। বিয়ের সময় শারমিনের দরিদ্র পিতা মেয়ের সুখের কথা ভেবে নগদ ৫০ হাজার টাকা ও স্বর্ণালঙ্কারসহ আসবাবপত্র প্রদান করে।

পরবর্তীতে বিয়ের ৬ মাস পর থেকে আব্দুস সালাম আবারও ৫০ হাজার টাকা যৌতুক দাবি করে গৃহবধূ শারমিনকে বিভিন্ন সময়ে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতে থাকে। শারমিনের বাবা আরো অভিযোগ করেন, গত বৃহস্পতিবার জামাই আব্দুস সালাম যৌতুকের দাবিতে তার মেয়েকে মারপিট করতে থাকে। এক পর্যায়ে ঘটনাস্থলেই শারমিনের মৃত্যু হলে তার গলায় ওড়না পেঁছিয়ে আত্মহত্যার প্রচারনা চালায়। পরে শারমিনের বাবা আত্মীয়-স্বজন নিয়ে ওই বাড়িতে গেলে মেয়ের জামাই আব্দুস সালাম ও পরিবারের লোকজন বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়।

এদিকে ওই দিন বিকেলে পুলিশ শারমিনের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।

আজ শনিবার (২৮ মার্চ) গৃহবধুর বাবা লিখিত অভিযোগে বলেন, এ ঘটনায় তিনি হত্যা মামলা করতে চাইলে উল্লাপাড়া থানার এসআই মোশারফ হোসেন তাকে হত্যা মামলা না করে ইউডি মামলা করার জন্য কাগজপত্রে স্বাক্ষর নেন।