পাঠ্যবই পর্যালোচনায় গঠিত বিতর্কিত কমিটি বাতিলের দাবি ও হিন্দুত্ববাদী সিলেবাস পূনর্বহালের অপচেষ্টার প্রতিবাদে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার (২০ জুলাই’১৭) সারাদেশে থানায় থানায় ‘মানববন্ধন’ ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবর ‘স্মারকলিপি পেশ’ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

পাঠ্যবইয়ে হিন্দুত্ববাদ পুনর্বহালের অপচেষ্টা এবং শিক্ষাক্রমে দেশের ইতিহাস-ঐহিত্য ও সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের মূল্যবোধের প্রতি শ্রদ্ধাশীল কবি-সাহিত্যিকদের গল্প, কবিতা ও প্রবন্ধ অন্তর্ভূক্তকরণ প্রসঙ্গে স্মারকলিপি পেশ ও মানববন্ধন কর্মসূচিতে বেশ কয়েক জায়গায় পুলিশ বাধা দেয়। প্রচ- ঝড়-বৃষ্টির মাঝে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচি পালন করায় ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি জি.এম. রুহুল আমীন ও সেক্রেটারি জেনারেল শেখ মুহাম্মাদ সাইফুল ইসলাম সকল নেতৃবৃন্দকে অভিনন্দন জানান। পাশাপাশি বিভিন্ন জায়গায় পুলিশি বাধার তীব্র নিন্দা জানান।

এক যৌথ বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় আরো বলেন, আমাদের পুরো শিক্ষাব্যবস্থা নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে। পাঠ্যবই পর্যালোচনায় গঠিত বিতর্কিত কমিটির কোনো প্রস্তাব গ্রহণ করা হলে সারাদেশে আন্দোলনের দাবানল ছড়িয়ে পড়বে। তৎপরিস্থিতির সকল দায়ভার সরকারকেই নিতে হবে। তাই কালক্ষেপণ না করে এই বাম ঘরানার বিতর্কিত কমিটি বাতিল করতেই হবে। তীব্র গণআন্দোলনের মাধ্যমে ওদের পিছু হটতে বাধ্য করা হবে।

এদিকে নেতৃদ্বয় ঢাবি অধিভূক্ত সাত কলেজের চলমান সংকট নিরসনের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশি হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।