শেখ হাসিনার ওপর ভরসা রাখুন: হানিফ

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেছেন, করোনাভাইরাসে আতঙ্কিত না হয়ে সবাইকে সচেতন হতে হবে। এই দুর্যোগ মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতিমধ্যে প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নিয়েছেন। প্রয়োজনীয় নির্দেশনাও দিয়েছেন। সামর্থের সবটুকু দিয়েই এই দুর্যোগ মোকাবেলার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। বঙ্গবন্ধুকন্যার ওপর আস্থা রাখুন,ভরসা রাখুন।

করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে রোববার এক ভিডিও বার্তায় তিনি এ সব কথা বলেন।

হানিফ আরও বলেন, আপনারা জানেন যে, আজ সারাবিশ্ব গভীর এক সংকট এবং বিপর্যয়ের মুখে। গোটা মানবজাতি আতঙ্কগ্রস্ত। মানবজীবন আজ বিপন্ন। করোনাভাইরাস নামক ভাইরাসের আক্রমণে ইতিমধ্যে বহু মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে। প্রতিদিন মৃত্যুর মিছিল লম্বা হচ্ছে। আমাদের চিকিৎসকরা, নার্সসহ কর্মকর্তারা এই দুর্যোগ মোকাবেলায় অসীম সাহসের সঙ্গেই তাদের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।

তিনি বলেন, করোনাভাইরাস ১৪ দিন পর্যন্ত এক দেহ থেকে আরেক দেহে সংক্রমণ করার ক্ষমতা রাখে। একই ব্যক্তি একাধিকবার আক্রান্ত হতে পারে। এখন পর্যন্ত এই ভাইরাসের কোনো ওষুধ নেই। পরিত্রাণের একমাত্র উপায় ও ভাইরাসের কমিউনিটি ট্রান্সমিশন ব্রেকডাউন করা।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বলেন, সেই জন্য আমাদের সবার প্রয়োজন ঘরে থাকা। অন্যের সংস্পর্শ থেকে দূরে থাকা। পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করতে হবে। একে অন্যকে দূরে রাখার চেষ্টা করতে হবে।

হানিফ বলেন, আমি বা আপনি আমরা কেউ নিশ্চিত নই যে, আমরা করোনাভাইরাস মুক্ত। সে কারণেই আমাদের এই মুহূর্তে করণীয় একটাই, সেটা হচ্ছে- ঘরে থাকা, ঘরে থাকা এবং ঘরে থাকা। সেই সঙ্গে অন্যের সংস্পর্শ থেকে দূরে থাকা।

তিনি বলেন, সবাই ঘরে থাকুন, অন্যকে ঘরে থাকার পরামর্শ দিন। আমি নিজেও আপনাদের মতোই ঘরেই আছি। চিকিৎসক ও বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ অনুযায়ী চলুন, সরকারি নির্দেশনা মেনে চলুন। সামর্থ অনুযায়ী, দরিদ্রদের সহায়তা করুন। আল্লাহর ওপর ভরসা রাখুন। ইনশাআল্লাহ, এই দুর্যোগ কেটে যাবে।

Previous post সোমবার দুপুরে করোনা ভাইরাস থেকে মুক্তির জন্য আল্লামা শফীর বিশেষ দোয়া
Next post করোনা পরিস্থিতিতে মসজিদ চালু রাখার ব্যাপারে একমত শীর্ষ আলেমরা