ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


মোংলা বন্দরসহ সারাদেশে ফের লাগাতার কর্মবিরতি শুরু করেছে নৌযান শ্রমিকরা।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিট থেকে এ কর্মবিরতি শুরু হয়।

নৌপথে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, ডাকাতি বন্ধ, ভারতগামী শ্রমিকদের ল্যান্ডিং পাস দেওয়া ও হয়রানি বন্ধ, নদীর নাব্যতা রক্ষা, নদীতে প্রয়োজনীয় মার্কা, বয়া ও বাতি স্থাপনসহ ১১ দফা দাবিতে এ কর্মবিরতি পালন করছে শ্রমিকরা। সারাদেশে যাত্রী, পণ্য ও তেলবাহী সব নৌযান চলাচল বন্ধ রেখে এ কর্মসূচি পালনের কথা জানিয়েছে তারা।

এ কর্মবিরতি নিয়ে মঙ্গলবার রাত পৌনে ১২ টার দিকে কথা বলেন বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী আশিকুল আলম পটল। তিনি জানান, এর আগে গত ১৫ এপ্রিল মধ্যরাত থেকে একই দাবিতে সারাদেশে নৌযান শ্রমিকরা কর্মবিরতি পালন শুরু করে। ১৭ এপ্রিল সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীসহ নৌযান মালিক পক্ষ ও শ্রমিক নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে যে বৈঠক হয় তাতে যেসব সিদ্ধান্ত হয়েছিল তা পরবর্তী ৪৫ কার্যদিবসের মধ্যে কার্যকর করার কথা ছিল। কিন্তু প্রায় তিন মাস অতিবাহিত হয়ে যাওয়ার পরও তা কার্যকর করা হয়নি। ফলে বাধ্য হয়েই পুনরায় এ কর্মবিরতি পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

মোংলা বন্দরের একজন ব্যবহারকারী এইচ এম দুলাল বলেন, নৌযান শ্রমিকদের এ কর্মবিরতিতে বন্দরে অবস্থানরত সব দেশি-বিদেশি বাণিজ্যিক জাহাজের পণ্য বোঝাই-খালাস ও পরিবহন কাজ বন্ধ হয়ে যাবে। এতে বন্দরের সঙ্গে সারাদেশের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে। ফলে বড় ধরনের ক্ষতির মুখে পড়েছেন আমদানি-রফতানিকারকরা।