সংসদ অধিবেশনে জয় বাংলাকে জাতীয় স্লোগান করার দাবি করেছেন শাজাহান খান

ফেব্রুয়ারি ৩, ২০২০ । নিজস্ব প্রতিনিধি



জাতীয় সংসদের অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শাজাহান খান ‘জয় বাংলা’কে জাতীয় ধ্বনি তথা স্লোগান ঘোষণার দাবি জানিয়েছেন। এসময় অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

তিনি বলেন, জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতি তার ভাষণ শেষ করেছেন জয় বাংলা বলে। গত বছরও রাষ্ট্রপতি তার ভাষণ শেষ করেছিলেন জয় বাংলা বলে। জয় বাংলা ধ্বনি দিয়ে শেষ করে একটা ইঙ্গিত করেছেন। আমি জয় বাংলা ধ্বনিকে জাতীয় ধ্বনি হিসেবে ঘোষণার দাবি জানাচ্ছি।

আজ সোমবার (৩ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদে ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এ দাবি জানান।

বিএনপির উদ্দেশ্যে শাজাহান খান বলেন, আসুন বিএনপির মধ্যে যারা মুক্তিযুদ্ধ করেছেন তাদের বলবো সত্যকে মেনে নিয়ে আপনারা এগিয়ে আসুন। বিএনপি অপরাজনীতিকে ছেড়ে দিয়ে সত্য প্রতিষ্ঠার জন্য বাঙালি জাতির ঐতিহ্য রক্ষা করুন। বিএনপিকে একটা ব্যবস্থাপত্র দিতে চাই। আপনারা যত অপরাধ করেছেন, নাশকতা করেছেন, সন্ত্রাস করেছেন হত্যাকাণ্ড করেছেন যা কিছু করেছেন তার জন্য জনগণের কাছে কড়জোরে ক্ষমা চান।

প্রতিজ্ঞা করুন আর কোনো দিন এসব অপকর্ম করবেন না। জামায়াত-শিবির-রাজাকার- আলবদর সঙ্গ ত্যাগ করেন যুদ্ধাপরাধী ও বঙ্গবন্ধু হত্যাকারীদের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেন। বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে জাতির জনক হিসেবে স্বীকার করুন। বলিষ্ঠ কণ্ঠে উচ্চারণ করুন জয় বাংলা ধ্বনি। তাহলে বাঙালি জাতি ভেবে দেখবে আপনাদের ক্ষমা করা যায় কিনা।

সরকারের উন্নয়ন তুলে ধরে শাজাহান খান বলেন, বাংলাদেশ এখন আর খাদ্য ঘাটতির দেশ নয়। এক সময় খাদ্য আমদানি করতে হতো। এখন আর করতে হয় না। বিদ্যুতের কোনো ঘাটতি নেই। আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে বাংলাদেশ বিদ্যুতে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে। এ সময় তিনি মুক্তিযোদ্ধাদের মাসিক ভাতা ২০ হাজার করাার দাবি জানান।


সর্বশেষ সংবাদ