ভারতীয় গুপ্তচরের ফাঁসির রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করতে আমন্ত্রণ জানালো পাকিস্তান

ভারতের সাবেক নৌবাহিনীর কমান্ডার কুলভূষণ সুধীর যাদবকে গুপ্তচরগিরি ও অন্তর্ঘাতমূলক তৎপরতা চালানোর অভিযোগে পাকিস্তানের একটি সামরিক আদালত যে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছিলো, তার বিরুদ্ধে রিভিউ পিটিশন দাখিল করতে ভারতকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে পাকিস্তান।

পাকিস্তানের আদালতকে অন্যায্য দাবি করে জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক ফৌজদারি আদালতকে (আইসিজে) হস্তক্ষেপ করার অনুরোধ করেছিলো ভারত। গত বছর আদালত ইসলামাবাদকে নির্দেশ দেয় মৃত্যুদণ্ডাদেশ ‘কার্যকরভাবে পর্যালোচনা’ করার জন্য। আর এটা করতে মুত্যুদণ্ড কার্যকরের উপর স্থগিতাদেশ অব্যাহত থাকা প্রয়োজন।

বুধবার (৮ জুলাই) পাকিস্তান পররাষ্ট্র দফতরের এক বিবৃতিতে বলা হয়, কমান্ডার যাদভের ক্ষমা প্রার্থণার পিটিশন এখনো বিবেচনাধিন থাকার পরও আইসিজের রায় কার্যকর করার জন্য ভারতকে একটি রিভিউ ও রিকনসিডারেশন পিটিশন দাখিল করার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

ভারতের অভিযোগ কুলভূষণ যেন কোন রিভিউ পিটিশন দাখিল না করেন সেজন পাকিস্তান তার উপর জোর খাটাচ্ছে। ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে দাবি করে, প্রহসনের বিচারে কুলভূষণ যাদবকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে। সে এখনো পাকিস্তান সেনাবাহিনীর হেফাজতে। এটা স্পষ্ট যে, সে যেন তার মামলায় রিভিউ পিটিশন দায়ের না করে সে জন্য তাকে বলপ্রয়োগ করা হচ্ছে।


ভারত আরো দাবি করছে, রিভিউ ও রিকনসিডারেশন শুনানির জন্য পাকিস্তানের বাইরের আইনজীবীদের অনুমতি দিতে পাকিস্তানের কাছে বারবার অনুরোধ করার পরও ইসলামাবাদ তা প্রত্যাখ্যান করে আসছে।

পাকিস্তানের দক্ষিণাঞ্চলীয় বালুচিস্তান প্রদেশে বহুদিন ধরে বিচ্ছিন্নতাবাদী কর্মকাণ্ড চলছে। এসব গ্রুপকে ভারত বিচ্ছিন্নতাবাদ ও সন্ত্রাসে উষ্কানী দিচ্ছে বলে পাকিস্তান মনে করে। গত মাসে করাচি শেয়ারবাজারে সন্ত্রাসী হামলার পেছনেও ভারতের হাত থাকার দাবি করেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান সরকার। বালুচিস্তানের একটি বিচ্ছিন্নতাবাদি গ্রুপ এই হামলার দায় স্বীকার করে।

পাকিস্তানের বালুচিস্তানের বিচ্ছিন্নতাবাদীদের এই স্থান থেকেই ২০১৬ সালে ভারতীয় এই গুপ্তচরকে গ্রেফতার করে ইসলামাবাদ।

সূত্র: সাউথ এশিয়ান মনিটর