মাওলানা শাহ মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী’র সুস্থতার জন্য দেশবাসীর দোয়া কামনা করেছেন আল্লামা কাসেমী

চট্টগ্রাম অন্যতম বিখ্যাত দ্বীনি শিক্ষাকেন্দ্র জামিয়া বাবুনগরের পরিচালক দেশবরেণ্য প্রবীণ আলেম মাওলানা শাহ মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী’র রোগমুক্তি ও দীর্ঘ হায়াতের জন্য দেশবাসীর দোয়া চেয়েছেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ’র মহাসচিব শায়খুল হাদীস আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী।

গতকাল (১৬ জুলাই) বৃহস্পতিবার এক বার্তায় জমিয়ত মহাসচিব বলেন, মাওলানা শাহ মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী (দা.বা.) দেশের আলেম সমাজ ও সর্বস্তরের ধর্মপ্রাণ তৌহিদী জনতার কাছে অত্যন্ত শ্রদ্ধাভাজন এক উঁচু মাপের ব্যক্তিত্ব। হেফাজতে ইসলামের ব্যানারে ঈমান-আক্বীদার সুরক্ষা ও ইসলামবিদ্বেষী নাস্তিক্যবাদবিরোধী ১৩ দফার আন্দোলনে তিনি সামনের সারিতে নেতৃত্ব দিয়ে অনন্য ভূমিকা পালন করেছেন। দেশব্যাপী কওমি মাদ্রাসা শিক্ষার উন্নয়ন ও দেওবন্দী আকাবীরগণের নীতি-আদর্শ অটূট রাখায় তিনি অগ্রগামী হিসেবে সর্ব মহলে অত্যন্ত আস্থাবান মুরুব্বী আলেম।

ইসলাম ও মুসলমানদের স্বার্থে মাওলানা শাহ মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী’র বহুমুখী ভূমিকা ও অবিসংবাদিত নেতৃত্ব এবং সঠিক নীতি-আদর্শে দৃঢ়তা ও হক্বের পক্ষে বলিষ্ঠ কণ্ঠস্বর আমাদের জন্য বিশাল এক সম্পদ। তাঁর হাতে গড়া হাজার হাজার আলেম দেশ-বিদেশের বিভিন্ন স্থানে দ্বীনি খিদমত আঞ্জাম দিয়ে যাচ্ছেন। তাঁর চলনে বলনে দেওবন্দী আকাবীরদের সুস্পষ্ট নমুনা আমরা দেখতে পাই।

আল্লামা কাসেমী বলেন, এই মহান বুযূর্গ আলেম গত কিছু দিন থেকে অত্যন্ত অসুস্থ। বর্তমানে তিনি বিশেষজ্ঞ চিকিৎকের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন আছেন। দেশবাসীর কাছে হযরতের দ্রুত আরোগ্য লাভ ও বরকতময় হায়াতের জন্য বিশেষ দোয়ার উদাত্ত্ব আহ্বান জানাচ্ছি।

জমিয়ত মহাসচিব বলেন, গত কয়েক মাসে প্রথম সারির বেশ কয়েকজন শীর্ষ আলেম দুনিয়া থেকে বিদায় নিয়েছেন। এটা জাতির জন্য অশনী সংকেত। বর্তমানে অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে নানাভাবে মুসলমানরা অত্যন্ত সংকটময় সময় অতিবাহিত করছেন। এই কঠিন সঙ্কটময় সময়ে মুরুব্বী আলেমদের উপস্থিতি ও দিক-নির্দেশনা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। পরম করুণাময় মহান আল্লাহর দরবারে বিশেষ দোয়া করছি, তিনি যেন দয়াপরবশ হয়ে হযরত মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরীকে সুস্থতা ও শেফায়ে কামেলা দান করেন এবং হায়াত বৃদ্ধি করে আমাদের সকলের উপর আরো দীর্ঘ দিন ছায়া ও পরম অভিভাবক করে রাখেন। আমীন।।