লিবিয়াতে যুদ্ধবাজ হাফতারকে মিশর ও আমিরাতের উস্কে দেওয়া অবৈধ: এরদোগান

লিবিয়ার আন্তর্জাতিক স্বীকৃত জিএনএ সরকারের বিরুদ্ধে যুদ্ধবাজ খলিফা হাফতারকে প্রকাশ্য মদদ দিয়ে যাচ্ছে মিশর, রাশিয়া ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। এর আগে মিশরের স্বৈরশাসক আব্দেল ফাত্তাহ আল-সিসি রাজধানী কায়রোতে বৈঠক করে লিবিয়ার বেনগাজির উপজাতির নেতাদের জাতিসংঘ সমর্থিত সরকারকে বিরুদ্ধে উসকে দেয়। এছাড়াও উপজাতি গোষ্ঠিগুলোকে অস্ত্র দিয়ে সিসি লিবিয়াকে আরো অস্থিতিশীল করতে চাইছে বলে আশঙ্কা করছে জিএনএ সরকার। লিবিয়া ইস্যুতে খলিফা হাফতারকে সমর্থন ও উপজাতি গোষ্ঠিগুলোকে উস্কে দিয়ে ক্ষ্যান্ত নন সিসি; উল্টো লিবিয়ার আন্তর্জাতিক স্বীকৃত জিএনএ সরকারকে হুমকি দিয়ে তিনি দাবি করেন, আঞ্চলিক নিরাপত্তার স্বার্থে লিবিয়া ইস্যুতে মিশর খলিফা হাফতারকে সমর্থন করছে।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম আল-জাজিরার তথ্যমতে, লিবিয়া যুদ্ধে দেশটির জিএনএ সরকারকে সমর্থন দিচ্ছে তুরস্ক। অপরদিকে মিশর, আরব আমিরাত ও রাশিয়া এর শত্রুপক্ষ যুদ্ধবাজ বিদ্রোহী জেনারেল খলিফা হাফতারকে সমর্থন দিচ্ছে। লিবিয়ার পূর্বাঞ্চল দখল করেন খলিফা হাফতার। সম্প্রতি তুরস্ক জিএনএ সরকারের সমর্থনে লিবিয়ায় সেনা পাঠালে পুনরায় বেশ কিছু শহর নিয়ন্ত্রণ নিতে সক্ষম হন আন্তর্জাতিক স্বীকৃত সরকার।

এদিকে লিবিয়ায় নাকানিচুবানি খেয়ে এ সপ্তাহে ‍যুদ্ধবাজ হাফতার মিশরকে এ যুদ্ধে অংশ নেওয়ার আহবান জানায়।

এ প্রেক্ষিতে যুদ্ধবাজ খলিফা হাফতারকে সমর্থন ও অন্যান্য উপজাতিদের মিশর ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের উস্কে দেওয়ার নিন্দা জানিয়ে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান বলেন, মিশর লিবিয়াতে প্রবেশ করলেও জিএনএকে সহায়তা চালিয়ে যাবে তুরস্ক। হাফতারকে সহায়তায় মিশর যেসব কর্মকাণ্ড করছে তা সবই অবৈধ। অপরদিকে তিনি আরব আমিরাতের আচরণকে দস্যুতার সঙ্গে তুলনা করেন।

About |

Check Also

বিনামূল্যে করোনা ভ্যাকসিন বিতরণ করবে পাকিস্তান সরকার

করোনাভাইরাস মোকাবেলার জন্য ভ্যাকসিন কিনবে এবং বিনামূল্যে তা জনগণের মাঝে বিতরণ করবে পাকিস্তানের সরকার ইমরান …