শান্তিচুক্তি মানতে নারাজ ঘানি; অবশেষে হামলা বাড়িয়ে দিলো তালেবান

চলতি বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি তালেবানের সাথে এক ঐতিহাসিক শান্তিচুক্তি করে আমেরিকা সরকার। প্রায় বিশ বছরের যুদ্ধ শেষে তালেবানের সাথে সম্পাদিত চুক্তির মাধ্যমে খোদ পরাজয়ের খাতায় স্বাক্ষর করে বিশ্বের সুপার পাওয়ার খ্যাত আমেরিকা। ওই চুক্তি মোতাবেক মার্কিন সমর্থিত আফগানের আশরাফ ঘানি সরকার এর নির্মম কারাগারে থাকা তালেবানের পাঁচ হাজার বন্দিকে মুক্তি দেওয়ার কথা রয়েছে। অপরদিকে যুদ্ধে আটক হওয়া ঘানি সরকারের এক হাজার সেনাকে ছেড়ে দিবে তালেবান।

চলতি জুলাই মাসের ১৬ তারিখে ওই চুক্তি মোতাবেক ঘানি সরকারের ৮৪৫ জন সেনা সদস্যকে মুক্তি দিয়েছে তালেবান। এর মাধ্যামে তালেবান স্বাক্ষরিত শান্তিচুক্তির শর্ত পূরণ করে আবারও নজির স্থাপন করেছে।

অপরদিকে চুক্তি মোতাবেক পাঁচ হাজার তালেবানকে মুক্তি দেওয়ার অঙ্গীকার করলেও ৪ হাজার চাঁরশত জনকে মুক্তি দিয়ে বাকি ছয়শত বন্দীকে মু্ক্তি দিতে অস্বীকৃতি জানিয়ে শর্ত ভঙ্গের পথে হাটছে আমেরিকা সমর্থিত আফগানের আশরাফ ঘানি সরকার।

তবে বন্দীদের মু্ক্তির বিষয়ে ছাড় দিতে নারাজ তালেবান। বন্দীদের মুক্তি ছাড়া আফগান অভ্যন্তরীণ আলোচনা বা যুদ্ধ বন্ধ করবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে তারা।

এ বিষয়ে তালেবানের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ বলেন, আমাদের অবস্থান হলো স্বাক্ষরিত শান্তিচুক্তির বাস্তবায়ন এবং উত্তেজনা কমিয়ে আনা ও যুদ্ধ বন্ধের জন্য আন্ত:আফগান আলোচনা শুরু করা।

ঘানি সরকারের কারাগারে আটক বাকি বন্দীদের মুক্তি দিতে অস্বীকৃতি জানানোর পর হামলার মাত্রা বাড়িয়ে দিয়েছে তালেবান। তারা বলছে, গত সোমবার (২০ জুলাই) রাতে কেন্দ্রীয় ওয়ারদাক প্রদেশে আফগান ন্যাশনাল আর্মির বহরের কাছে একটি মিনি ট্রাক ভর্তি বিস্ফোরক নিয়ে তাদের এক আত্মঘাতী হামলাকারী বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে। শক্তিশালী ওই বিস্ফোরণে প্রায় ৫০ আফগান সেনা নিহত হয়েছে।

আমেরিকার মদদপুষ্ট আফগান সরকারি বাহিনীর এক কর্মকর্তা সায়েদ আবাদ জেলার ওই হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করলেও তিনি দাবি করেছেন হামলায় আট সেনা নিহত এবং নয়জন আহত হয়েছে।

বন্দী বিনিময় নিয়ে আমেরিকার মদদপুষ্ট ঘানি সরকারের বারাবারির ফলে সংঘাতের মাত্রা বেড়ে গেছে। ফলে সেখানে যুদ্ধের অবসান ঘটিয়ে রাজনৈতিক সমাধান নিয়ে আসার জন্য আফগান-অভ্যন্তরীণ সংলাপ শুরুর জন্য আমেরিকা যে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে, সেটা বারবার বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

এদিকে, তালেবানরা মঙ্গলবার (২১ জুলাই) ঘোষণা দিয়েছে, ঘানি সরকারের সাথে বন্দী বিনিময় প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে তারা আরও ১৬ আফগান সেনাকে মুক্তি দিয়েছে। তারা বলেছে যে, প্রতিশ্রুত ১০০০ জনের মধ্যে ৮৬১ জনকে মুক্তি দিয়েছেন তারা।

ফেব্রুয়ারি মাসে তালেবানের সাথে আমেরিকার যে চুক্তি হয়, সেখানে বন্দী বিনিময়ের ব্যাপারে উভয়েই সম্মত হয়। আফগানিস্তানে দীর্ঘদিনের সংঘাতের অবসানের জন্য ওই চুক্তি করা হয়েছিল।

ঘানি সরকার শেষের ৬০০ তালেবান বন্দীদের মুক্তি দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। সে কারণে বহুল প্রতীক্ষিত আফগান-অভ্যন্তরীণ আলোচনা এখনও শুরু হতে পারছে না। মার্চ মাসে এই আলোচনা শুরুর কথা ছিল।

মঙ্গলবার সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে ঘানি সরকারের মুখপাত্র চুক্তিকে অগ্রাহ্য করে জোর দিয়ে বলেছে, যে সব বন্দীরা ‘মারাত্মক অপরাধ’ করেছে তাদেরকে মুক্তি দেওয়া যাবে না।


সূত্র: ভয়েজ অব আমেরিকা

About |

Check Also

বিনামূল্যে করোনা ভ্যাকসিন বিতরণ করবে পাকিস্তান সরকার

করোনাভাইরাস মোকাবেলার জন্য ভ্যাকসিন কিনবে এবং বিনামূল্যে তা জনগণের মাঝে বিতরণ করবে পাকিস্তানের সরকার ইমরান …