ভারতীয় শরণার্থীর ঢল ঠেকাতে উত্তর উপকূলে কড়া নজর শ্রীলংকার

কোভিড-১৯ মহামারী ছড়িয়ে পড়ার কারণে ভারত থেকে শ্রীলংকান শরণার্থীরা নৌকায় করে শ্রীলংকায় ফেরার চেষ্টা করছেন, এমন রিপোর্ট প্রকাশিত হওয়ার পর উত্তরাঞ্চলের উপকূলীয় এলাকায় নজরদারি জোরদার করেছে শ্রীলংকা সরকার। তবে তামিল নাড়ুর কর্তৃপক্ষ সেখান থেকে বড় সংখ্যায় শরণার্থীদের অবৈধভাবে ফিরে যাওয়ার চেষ্টার এ ধরণের খবর নাকচ করে দিয়েছে।

শ্রীলংকার নর্দার্ন প্রভিন্সের গভর্নর পি এস এম চার্লস ২ জুলাই দ্য হিন্দুকে বলেন, “আমরা নৌবাহিনী, উপকূলীয় পুলিশ, গ্রাম সেবক, এবং স্থানীয় জেলেদের সতর্ক করে দিয়েছি। আমরা এ ধরণের তথ্য পেয়েছি যে, কিছু শরণার্থী ভারতে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার কারণে সেখান থেকে চলে আসার চেষ্টা করছে। মাছ ধরার নৌকায় চড়ে অবৈধভাবে তারা শ্রীলংকায় প্রবেশ করতে পারে”।


শ্রীলংকা কর্তৃপক্ষের এ ধরণের আশঙ্কা বেড়ে যাওয়ার কারণ হলো জুন মাসের শুরুর দিকে তামিল নাড়ু থেকে এক বাবা ও তার মেয়ে নৌকায় করে শ্রীলংকায় চলে আসে। তারা তামিল নাড়ু রাজ্যের কোইমবাতোরে জেলায় শ্রীলংকান শরণার্থী ক্যাম্পের বাসিন্দা ছিল। তারা শ্রীলংকায় পৌঁছানোর পর লংকান পুলিশ তাদেরকে হেফাজতে নিয়েছে। একই সাথে তাদেরকে আসতে যে ছয়জন ‘সাহায্য করেছিল’ তাদেরকেও গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সূত্র: সাউথ এশিয়ান মনিটর

শেয়ার করুণ
  •