এসআই’র নেতৃত্বে দোকান ভাঙচুর, মা-মেয়ের ওপর হামলা!

ঢাকার ধামরাইয়ে পুলিশ সদস্যের নেতৃত্বে দোকান ও জমি দখল করতে গিয়ে মা-মেয়েকে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরে রাতেই পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) রাত সাড়ে আটটার দিকে উপজেলার চৌহাট ইউনিয়নের নিকলা বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

সরেজমিনে জানা গেছে, মুন্সিরচর গ্রামের বাসিন্দা এসআই আনিসুর রহমান ও তার ভাই আতুল্লাচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শহিদুর রহমানের নেতৃত্বে এ হামলার ঘটনা ঘটে। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে মুন্সিরচর বাজারে নিকলা মৌজায় মোকাদ্দেস আলীর চায়ের দোকান দখলে নিতে ব্যাপক ভাঙচুর চালান তাঁরা। এ সময় দোকানে থাকা মোকাদ্দেসের স্ত্রী সামেলা বেগম ও তার মেয়ে রেহেনা আক্তার পলি বাধা দিলে তাঁদের টেনে-হিঁচড়ে দোকান থেকে বের করে রাস্তায় নিয়ে বেদম মারধর করে রক্তাক্ত করা হয়। দোকানের আসবাবপত্র ভাঙচুরের পর দোকানে তালা লাগিয়ে দেওয়া হয়।

আহত সামেলা ও তার মেয়ের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। পরে আহত সামেলা বেগমকে সাটুরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন স্থানীয়রা। এ ঘটনা পুলিশকে জানানো হলে রাতেই পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত এসআই আনিসুর রহমান বলেন, আমরা কাউকে মারধর করিনি; বরং আমার বোনকেই তারা মেরেছে। তিনি একপর্যায়ে বলেন, তার বিরুদ্ধে জিডির প্রতিবেদন পুলিশ আমার পক্ষেই দিয়েছে।

ধামরাই থানার ওসি দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, বাড়িঘর ভাঙচুর ও মারধরের খবর শুনে রাতেই পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।