সরকারের ব্যার্থতার কারণেই সর্বত্র ধর্ষণ ছড়িয়ে পড়েছে : মাওলানা ইউনুস আহমাদ

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মহাসচিব মাওলানা ইউনুস আহমাদ বলেছেন, যারা ক্ষমতায় আছে তারা এক ধরণের বিচারহীনতার সুবিধা ভোগ করছে। সেই সুবিধা তাদেরকে নানা অপকর্মে প্ররোচিত করে। এর মধ্যে দুর্নীতি, লুটপাট, খুন, ধর্ষন অন্যতম। এর জন্য বর্তমান অবক্ষয়গ্রস্ত দলীয় রাজনীতি সবচেয়ে বেশি দায়ী। ক্ষমতার সুবিধা নিতে দলে দুর্বৃত্তপরায়ন ও দাগি অপরাধীরা নেতৃত্বের আসন ভাগিয়ে নেয়।

আজ (শুক্রবার) বাদ জুমা চট্টগ্রাম ওয়াসা মোড়ে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চট্টগ্রাম মহানগর আয়োজিত যিনা-ব্যভিচার ও ধর্ষন বিরোধী সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অধ্যক্ষ ইউনুছ দলীয় রাজনীতিতে নৈতিক অবক্ষয়ের কাঠোর সমালোচনা করে বলেন, যখন কারো অপরাধের খবর সামনে আসে তখন দলীয়ভাবে সে আমাদের কেউ নয় বা সে বহিরাগত বলা হয়, এটা এক প্রকার রাজনৈতিক দেউলিয়াত্ব। তিনি বলেন, বিদ্যমান ভঙ্গুর রাষ্ট্র-ব্যবস্থার অধীনে আইন পাশ করে যিনা ব্যভিচার ও ধর্ষনরোধ সম্ভব নয়। আগে রাষ্ট্রযন্ত্র শুদ্ধিকরণের অভিযানে নামতে হবে। তিনি যিনা-ব্যভিচার, ধর্ষণসহ সকল অনাচার থেকে আপামর জনসাধাণের মুক্তির জন্য চিরশান্তির পথ ইসলামী শাসন ্যবস্থা প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার জন্য উদাত্ত আহ্বান জানান।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চট্টগ্রাম মহানগরের সভাপতি ও কেন্দ্রীয় নেতা মুহাম্মদ জান্নাতুল ইসলামের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন, মুহাম্মদ আবুল কাশেম মাতব্বর, আল মুহাম্মদ ইকবাল, মাওলানা সানাউল্লাহ নুরী, ওলামা-মাশায়েখ নেতা মাওলানা মনসুরুল হক জিহাদী, মাওলানা আমজাদ হোসাইন, কেন্দ্রীয় ছাত্রনেতা জামাল উদ্দিন মুহাম্মদ খালেদ, এইচএম মোসলেহ উদ্দিন, শ্রমিক নেতা ওয়ায়েজ হোসেন ভূইয়া, ডা. রেজাউল করীম রেজা, যুবনেতা তাজুল ইসলাম শাহীন, মাওলানা তরীকুল ইসলাম, ছাত্রনেতা রিদওয়ানুল হক শামসী ও নাজিম উদ্দিন প্রমুখ।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, বর্তমান সরকার দেশের মা-বোনদের জান-মাল ও ইজ্জতের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে। যারা মা-বোনদের ইজ্জত লুণ্ঠন ও ধর্ষনের সাথে জড়িত তাদের বিচার ও উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করতে বারবার ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। কারণ এসব ঘটনার সাথে জড়িতরা প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে আওয়ামী রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত। অবিলম্বে আমরা নোয়াখালীতে ঘটে যাওয়া নির্মম ঘটনাসহ সারাদেশে সংঘটিত ধর্ষণের সাথে জড়িত ধর্ষক ও সন্ত্রাসীদের বিচার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।