কাশ্মীর ইস্যুতে ওআইসি’র গরিমসি, মুসলিম দেশগুলোকে নিয়ে বৈঠকের হুঁশিয়ারি পাকিস্তানের

মুসলিম অধ্যুষিত কাশ্মীর ইস্যুতে ওআইসির বৈঠক আহ্বানে গরিমসি বন্ধ করতে বলেছে পাকিস্তান।

মুসলিম দেশগুলোর জোটটির নিষ্ক্রিয় ভূমিকা নিয়ে সৌদি আরবের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করেন পাক পররাষ্টমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশি।

উল্লেখ্য, সৌদি আরব বর্তমানে ওআইসির নেতৃত্বে রয়েছে।

পাকিস্তানি টিভি চ্যানেল আরওয়াই’র একটি টক শোতে কোরেশি জানান, কাশ্মীর ইস্যুতে ওআইসির নিষ্ক্রিয় ভূমিকায় আর অপেক্ষা করতে রাজি নয় পাকিস্তান। জোটটির বাইরে গিয়ে মুসলিম দেশগুলোকে নিয়ে বৈঠকের প্রস্তুতি নেবেন তারা।

তিনি বলেন, সম্মানের সঙ্গে আমি আবারও ওআইসিকে আহ্বান করছি, তারা যেন আমাদের দাবি মেনে কাশ্মীর ইস্যুতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের নিয়ে একটি বৈঠক ডাকে।

কোরেশি বলেন, তারা যদি ব্যর্থ হয় তাহলে আমি প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে আহ্বান জানাব, তিনি যাতে কাশ্মীরের সমর্থনে এবং নিপীড়িত কাশ্মীরিদের পাশে দাঁড়াতে প্রস্তুত মুসলিম দেশগুলোকে নিয়ে একটি বৈঠক ডাকেন।

এদিকে ৫ আগস্ট ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের এক বছর পূর্তি হলো। গত বছরের এই দিনে সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করে ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকার কাশ্মীরকে পুরোপুরি দিল্লির নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে।

কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর থেকে ৫৭টি মুসলিম দেশের জোট ওআইসিকে এ নিয়ে অধিবেশন ডাকার একাধিকবার আহ্বান জানায় পাকিস্তান। এই ইস্যুতে জোটটির নেতৃত্বে থাকা সৌদি আরবের ভূমিকার সমালোচনা করেন পাক পররাষ্ট্র মন্ত্রী কোরেশি।

তিনি বলেন, সৌদি আরবের অনুরোধে কুয়ালামপুরে কয়েকটি মুসলিম দেশগুলো নিয়ে অধিবেশনে যোগ দেয়নি পাকিস্তান। এখন পাকিস্তানের মানুষের দাবি, রিয়াদ কাশ্মীর ইস্যুতে তার ভূমিকা রাখুক।

পাক পররাষ্টমন্ত্রী আরও বলেন, কাশ্মীর নিয়ে আমাদের নিজস্ব অনুভূতি রয়েছে। আপনাকে এটি উপলব্ধি করতে হবে। উপসাগরীয় দেশগুলোকে এটি বোঝা উচিত।

কুরেশি স্পষ্ট করেন যে, তিনি কোনোভাবে আবেগপ্রবণ নন এবং তার বক্তব্যের প্রভাব বিবেচনা করেই তিনি এমনটি বলছেন।

তিনি আরও বলেন, এটা ঠিক, সৌদি আরবের সঙ্গে আমাদের সুসম্পর্ক থাকা সত্ত্বেও আমি এ অবস্থান নিচ্ছি। কাশ্মীরিদের দুর্ভোগের বিষয়ে আমরা আর চুপ করে থাকতে পারি না।

About |

Check Also

মার্কিন নিষেধাজ্ঞা সত্বেও রাশিয়া থেকে এস-৪০০ কিনবে তুরস্ক

মার্কিন নিষেধাজ্ঞা সত্বেও রাশিয়া থেকে এস-৪০০ বিমানবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ক্রয় করা থেকে ফিরবে না …