বাইডেন সৃষ্টিকর্তা, বাইবেল, বন্দুক ও শক্তি বিরোধী: ট্রাম্প

আগামী নভেম্বরে আমেরিকায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারণায় কথার লড়াইয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী ডেমোক্রেটিক পার্টির জো বাইডেনকে খুব বাজেভাবে আক্রমণ করলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

দ্বিতীয়বারের মতো প্রেসিডেন্ট হওয়ার লড়াইয়ে থাকা রিপাবলিকান এই রাজনীতিকের মতে, বাইডেন ‘সৃষ্টিকর্তা বিরোধী, বাইবেল বিরোধী’।

বৃহস্পতিবার ওহিও রাজ্যে নির্বাচনী প্রচারণায় বক্তব্য দেওয়ার সময় বাইডেনকে নিয়ে এমন মন্তব্য করেন ট্রাম্প। তার দাবি, তার প্রতিদ্বন্দ্বী ক্ষমতায় আসলে যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানের দ্বিতীয় সংশোধনীর মাধ্যমে নাগরিকদের অস্ত্র রাখার যে অধিকার দেওয়া হয়েছে তা কেড়ে নেবেন।

বাইডেনকে অতি বামপন্থী রাজনীতিক আখ্যা দিয়ে ৭৪ বছর বয়সী ট্রাম্প বলেন, “তিনি সৃষ্টিকর্তা বিরোধী। বন্দুক রাখার বিরোধী।”

অথচ বারাক ওবামার সময় ভাইস-প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করা ৭৭ বছর বয়সী বাইডেন একাধিকবার নিজের ধর্মীয় অবস্থান পরিষ্কার করেছেন। তিনি ক্যাথলিক খ্রিষ্টধর্মের অনুসারী।

১৯৭২ সালে এক সড়ক দুর্ঘটনায় প্রথম স্ত্রী ও কন্যার মৃত্যুর ধাক্কা কাটিয়ে উঠতে ধর্মীয় বিশ্বাস কতটা কাজে দিয়েছিল সেটা নিয়েও প্রায়ই কথা বলে থাকেন ৭৭ বছর বয়সী বাইডেন।

আর নির্বাচনী আক্রমণে সেই বাইডেনকেই একেবারে সৃষ্টিকর্তা বিরোধী বানিয়ে দিলেন ট্রাম্প। ওহিও’র ক্লেভল্যান্ডে দেওয়া ভাষণে বলেন, “তিনি (বাইডেন) বৈপ্লবিক বাম নীতি অনুসরণ করছেন।”

“তিনি আপনাদের বন্দুক কেড়ে নেবেন, এ ব্যাপারে আপনাদের দ্বিতীয় সংশোধনী বাজেয়াপ্ত করবেন। তার নীতিতে কোনো ধর্ম নেই। তিনি বাইবেলকে আঘাত করছেন, ঈশ্বরকে আঘাত করছেন।”

“তিনি ঈশ্বর বিরোধী, বন্দুক বিরোধী, শক্তি ও আমাদের শক্তির ধরনের বিরোধী।”

ট্রাম্পের এমন মন্তব্যের জবাবে বিবৃতিতে দিয়েছেন বাইডেনের নির্বাচনীয় প্রচারণার মুখপাত্র অ্যান্ড্রু ব্যাটস- “জো বাইডেনের অন্তরের ধর্মীয় বিশ্বাস রয়েছে। মর্যাদার সঙ্গে পুরোটা জীবন তিনি কাটিয়েছেন। আর এই বিশ্বাস তার শক্তির একটি উৎস এবং কঠিন সময়েও স্বস্তির জায়গা।”