মদ্যপ ছেলেকে হত্যার পর থানায় গিয়ে বৃদ্ধ বললেন উপায় ছিল না

মদ্যপ ছেলের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে মধ্য রাতে তাকে হত্যার পর পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করলেন এক বৃদ্ধ। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের জলপাইগুড়ি শহরের পশ্চিম অরবিন্দ নগর এলাকায়। এরই মধ্যে ছেলে হত্যার অভিযোগে ওই বৃদ্ধকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

জলপাইগুড়ির অরবিন্দনগরের ৭৩ বছরের বৃদ্ধ অনিল দেবনাথ। পেশায় সবজি বিক্রেতা তিনি। প্রতিবেশীরা জানান, ওই বৃদ্ধের ছেলে মদ্যপ। প্রায় দিনই মদ খেয়ে বাড়ি ফিরে বাবা, মা, স্ত্রী ও সন্তানের ওপর অত্যাচার করতো সে। বিভিন্নভাবে ওই যুবককে বোঝানোর চেষ্টা করেছে পরিবারের সদস্যরা।


তবে, তাতে কোনো কাজ হয়নি। নিহতের অত্যাচারের মাত্রা দিনদিন বেড়েই যাচ্ছিল। এ পরিস্থিতিতে গতকাল রবিবার রাতে চুপিসারে ঘুমন্ত ছেলের কাছে যান অনিল দেবনাথ। ধারাল অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ছেলেকে হত্যা করেন তিনি। এরপর ভোর হতেই হাজির হন থানায়।

পুরো বিষয়টি জানার পর ওই বৃদ্ধকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পুলিশকে ওই বৃদ্ধ জানিয়েছেন, কাজটা ঠিক করিনি। কিন্তু কোনো উপায় ছিল না। পুলিশ এরই মধ্যে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠিয়েছে। ঘটনার পেছনে অন্য কোনো রহস্য লুকিয়ে আছে কি না, সেটাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ। আজ আদালতে তোলার কথা রয়েছে ওই বৃদ্ধকে।

About |

Check Also

‘রাশিয়া থেকে আর্মেনিয়া ক্ষেপণাস্ত্র পাচার করছে’

আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ অভিযোগ করে বলেছেন, ব্যক্তি মালিকানাধীন বেসামরিক বাণিজ্যিক কার্গো বিমানে করে রাশিয়া …