বাঁচার তাগিদে খেলনা বিক্রি করছে ইদলিবের বাস্তুচ্যুত মুসলিম শিশুরা

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | সোহেল আহম্মেদ


সিরিয়ার সুন্নি মুসলিম গণহত্যার খলনায়ক বাশার আল আসাদ সরকার ও তার মিত্র ইরান, রাশিয়ার বিমান হামলায় ইদলিব শহরের বাস্তুচ্যুত পরিবারগুলো বিভিন্ন স্থানে আশ্রয় নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে। বিমান হামলার শিকার হয়ে পরিবারের বয়স্ক সদস্যরা আহত ও পুঙ্গ হয়ে যাওয়ায় বাঁচার জন্য জীবনযুদ্ধে নেমেছে সেখানকার মুসলিম শিশুরা।

আসাদ সরকারের বিমান হামলা বৃদ্ধির ফলে পূর্ব ইদলিবের একটি গ্রাম থেকে দারা, তামের ও আসমা নামে তিন ভাই-বোন পরিবারসহ বাস্তুচ্যুত হয়ে অন্য গ্রামের একটি পরিত্যাক্ত ভবনে আশ্রয় নিয়েছে।

তাদের বাবা বিমান হামলায় গুরুতর আহত হয়েছেন। এতে তার একটি হাত অবশ হয়ে পড়েছে। ফলে এখন তিনি কোন কাজ করতে পারছেন না। এ অবস্থায় বাঁচার তাগিদে জীবনযুদ্ধে নেমেছে তিন ভাই-বোন। তারা এখন রাস্তার পাশে বসে খেলনা বিক্রি করে। এতে যা আয় হয় তা দিয়েই অর্ধাহারে অনাহারে তাদের জীবন কাটছে।


ইউনিসেফের মতে, সিরিয়ায় প্রায় ৫ মিলিয়ন শিশুর বর্তমানে মানবিক সহায়তার প্রয়োজন। ২.৬ মিলিয়ন শিশু অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত হয়েছে। কমপক্ষে ২৮ মিলিয়ন শিশু বর্তমানে শিক্ষা গ্রহণ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

সূত্র: আল জাজিরা