করোনার ভয়ে মানুষকে না খাইয়ে মারতে পারি না, তাদের বেঁচে থাকার ব্যবস্থা করার দায়িত্ব আমাদের: প্রধানমন্ত্রী

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ পরিস্থিতিতে দেশের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড চালু রাখার যৌক্তিকতা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, করোনা ভাইরাস তো এখন বাস্তবতা।

তিনি বলেন, করোনার ভয়ে তো আমরা মানুষকে না খাইয়ে মারতে পারি না। তাদের বেঁচে থাকার ব্যবস্থাটা আমাদের নিতে হবে। যেসব এলাকায় সংক্রমণ বেশি সেখানে লকডাউন করে তা আটকানোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

আজ রোববার (১৪ জুন) জাতীয় সংসদে সিরাজগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ নাসিমের মৃত্যুতে আনা এক শোক প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

সংসদের নিয়ম অনুযায়ী চলতি সংসদের কোনো সদস্য মারা গেলে তার ওপর আনা শোক প্রস্তাব নিয়ে সংসদে আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

এ শোক প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। তিনি মোহাম্মদ নাসিমের পাশাপাশি ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহকেও স্মরণ করেন।

করোনা সংক্রমণ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, এই আতঙ্কটা এমন পর্যায়ে চলে যাচ্ছে যেটা সত্যি খুব দুঃখজনক। করোনা ভাইরাসের ভীতিটা প্রতিনিয়ত সারা বিশ্বেই। এখানে উন্নত দেশ, অনুন্নত দেশ বা উন্নয়নশীল দেশ, অস্ত্রের দিক থেকে শক্তিশালী, অর্থের দিক থেকে শক্তিশালী অথবা হয়তো দরিদ্র রাষ্ট্র- কোনো ভেদাভেদ নেই। সব যেন এক হয়ে গেছে এক করোনা ভাইরাসের ভয় এবং আতঙ্কে। সব জায়গায় কিন্তু একই অবস্থা। আমেরিকা থেকে শুরু করে উন্নত পশ্চিমা দেশ থেকে এসে আমাদের দক্ষিণ এশিয়ায় এই ওয়েবটা চলছে।

Previous post ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর ইন্তেকালে আল্লামা বাবুনগরীর শোক প্রকাশ
Next post করোনা পরীক্ষার নামে আমরা নাটক দেখছি, ৩০০ টাকার করোনা পরিক্ষা এখন ৫০০০ টাকায় করাতে হচ্ছে