কাশ্মীরের জনগণ শীঘ্রই স্বাধীনতা লাভ করবে: ইমরান খান

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | সোহেল আহম্মেদ


জম্মু ও কাশ্মীরের আধা-স্বায়ত্তশাসিত মর্যাদাকে বাতিল করতে ভারতের একতরফা পদক্ষেপের প্রথম বার্ষিকীতে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, কাশ্মীরের জনগণ শীঘ্রই স্বাধীনতা লাভ করবে।

বুধবার (৫ আগষ্ট) পাকিস্তান-শাসিত কাশ্মীরের বিধানসভায় বক্তব্য প্রদানকালে এসব কথা বলেন ইমরান খান।

তিনি বলেন, “ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী গত বছরের ৫ আগস্ট একটি ভুল সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন যার ফলশ্রুতিতে কাশ্মীরি যুবকরা এমনকি ভারতপন্থী কাশ্মীরি নেতৃবৃন্দও তার বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিরোধ গড়ে তুলেছিলো।”

ইমরান খান আরো বলেন, “কাশ্মীরিদের চূড়ান্ত অধিকার পাওয়ার সময় এসেছে যে ব্যাপারে জওহরলাল নেহরু এবং অন্যান্য ভারতীয় নেতৃবৃন্দ অতীতে তাদের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। এ সমস্যার এই একটি মাত্র সমাধান রয়েছে এবং এটি জাতিসংঘের প্রচেষ্টার উপর নির্ভর করছে।”

ভারত সরকারের সমালোচনা করে খান বলেন, “মোদী ধারণা করেছিলেন যে পাকিস্তান ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় তার বর্বরতার বিষয়ে চুপ করে থাকবে। কিন্তু তার পরিকল্পনা বাস্তবে রুপ নেয়নি কারণ
পাকিস্তান ট্রাম্প ও অ্যাঞ্জেলা মার্কেলসহ বিশ্বের সব নেতাদের সাথে সাক্ষাত করে কাশ্মীর সম্পর্কে বিস্তারিত অবহিত করেছে।”

ইমরান খান ঘোষণা করেন যে, তাঁর সরকার ভারতীয় শাসনের বিরুদ্ধে প্রতিরোধের জন্য আগামী ১৪ আগস্ট পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবসে কাশ্মীরি নেতা সৈয়দ আলী গিলানিকে দেশের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা পুরস্কার নিশান-ই-পাকিস্তান প্রদান করবে।

ইমরান খান প্রত্যেক মঞ্চে কাশ্মীর ইস্যু উত্থাপন অব্যাহত রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেন, স্বাধীনতা না পাওয়া পর্যন্ত পাকিস্তান কাশ্মীরকে সমর্থন করবে।