ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রকল্প থেকে দারুল আরকাম মাদরাসা বাদ দেওয়ায় ইসলামী আন্দোলনের ক্ষোভ

ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রকল্প থেকে দারুল আরকাম মাদরাসা বাদ দেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মহাসচিব প্রিন্সিপাল মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান ও মাওলানা গাজী আতাউর রহমান।

সোমবার (১৮ মে) এক যৌথ বিবৃতিতে উনারা গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস মহামারি চলাকালে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের (ইফা) মসজিদভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা প্রকল্প থেকে দারুল আরকাম ইবতেদায়ি মাদরাসা বাদ দেওয়ায় সারাদেশে দুই লক্ষাধিক শিক্ষার্থীর শিক্ষাজীবন অনিশ্চিয়তার মুখে পড়লো, যা উদ্বেগজনক।

নেতৃবৃন্দ বলেন আরও বলেন, দারুল আরকাম ইবতেদায়ি মাদরাসার আলেম শিক্ষক-শিক্ষিকারা দীর্ঘ ৫ মাস যাবত বেতন-ভাতা পাচ্ছেন না। লকডাউনের মাঝে ১ হাজার ১০টি দারুল আরকাম ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষক শিক্ষিকারা পরিবার-পরিজন নিয়ে মানবেতর দিন কাটাচ্ছেন। এরই মাঝে প্রকল্প বাদ দেওয়ায় তাদের জীবনের নেমে এসেছে অনিশ্চয়তা। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে দাঁড়িয়েছে যে, তারা কারও কাছে হাতও পাততে পারছেন না। আসন্ন ঈদুল ফিতরের আগে তাদের বকেয়া বেতন-বোনাস দিতে হবে।

উল্লেখ্য যে, ১১ মে পরিকল্পনা কমিশন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রস্তাবিত পাঁচ বছর মেয়াদি সপ্তম পর্বে মসজিদভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা প্রকল্পে ৩ হাজার ১২৮ কোটি ৪৬ লাখ টাকা বরাদ্দ দিয়েছে। উল্লেখিত প্রকল্প থেকে দারুল আরকাম ইবতেদায়ি মাদরাসাকে বাদ রাখা হয়েছে।

Previous post আদর্শের পথে অবিচল থেকে এগিয়ে যাচ্ছে ‘ইনসাফ’
Next post আরও ৩ সাংবাদিক করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত