হাসপাতালে মোদির সফর না শুটিং?

হাসপাতালে প্রধানমন্ত্রীর সফর না ‘শুটিং’? শুক্রবার লেহ্‌ হাসপাতালে নরেন্দ্র মোদীর সফরের ছবি প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই এমন সব প্রশ্নের ঝড় উঠতে শুরু করে সোশ্যাল মিডিয়ায়। অনেকেই বলতে থাকেন, যে ছবি দেখানো হয়েছে তা কনফারেন্স হলের, তা মোটেই হাসপাতালের নয়।

প্রধানমন্ত্রীর হাসপাতাল সফর একটা ‘নাটক’ বলেও মন্তব্য পোস্ট হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেই বিতর্ক নিয়ে এ বার মুখ খুলল সেনাবাহিনী। খবর সাউথইস্টমনিটরের।

শনিবার তাদের তরফে দেওয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দেশের বীর জওয়ানদের চিকিৎসা পদ্ধতি নিয়ে যে কুৎসা ছড়ানো হচ্ছে, তা অত্যন্ত দুভার্গ্যজনক। আহত জওয়ানদেরও সবচেয়ে ভাল চিকিৎসা হচ্ছে বলেও এ দিন জানিয়েছে সেনা।

শুক্রবার লাদাখ সফরে যান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই সূত্রেই পৌঁছন লেহ্ হাসপাতালে। সেখানে ভর্তি রয়েছেন গালওয়ানে চিনা সেনার সঙ্গে সংঘর্ষে আহত জওয়ানরা। তাঁদের সঙ্গে দেখা করেন প্রধানমন্ত্রী। সেই ছবি প্রকাশ্যে আসতেই প্রশ্ন তুলতে শুরু করেন নেটাগরিকদের একাংশ। সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁদের অনেকেই প্রশ্ন তোলেন, জওয়ানদের শয্যার পাশে ওষুধপত্র নেই কেন? কেউ কেউ আরও এক ধাপ এগিয়ে গোটা বিষয়টিকে ‘শুটিং’ বলে মত প্রকাশ করেন। এ নিয়ে হাস্যরসাত্মক মন্তব্যেরও ঝড় বয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেই বিতর্কেই এ দিন মুখ খুলেছে সেনাবাহিনী। তাদের তরফে একটি বিবৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, লেহ্‌ জেনারেল হাসপাতালে প্রধানমন্ত্রীর সফরের পর হাসপাতালটির ব্যবস্থা নিয়ে ‘বিদ্বেষপূর্ণ এবং ভিত্তিহীন’ অভিযোগ উঠছে।

সেনাবাহিনীর ওই বিবৃতিতে এ-ও বলা হয়েছে, ‘‘এই বিষয়টি অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক যে বীর সৈন্যদের কী ভাবে চিকিৎসা হচ্ছে তা নিয়ে কুৎসা চলছে। সেনাবাহিনীর সদস্যদের সবচেয়ে ভাল চিকিৎসাই দেওয়া হচ্ছে।”

মোদীর সফরের যে ছবি দেখা গিয়েছে তাতে লেহ্‌-র হাসপাতালের ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন অনেকেই। অনেকেই বলতে থাকেন, যে ছবি দেখানো হয়েছে তা কনফারেন্স হলের, মোটেই হাসপাতালের নয়। ওয়ার্ডে থাকা প্রোজেক্টর নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। নেটাগরিকদের একাংশ বলতে শুরু করেন, এটা হাসপাতাল নয়, কনফারেন্স হলের ছবি। সেটাকেই হাসপাতাল বলে দেখানো হচ্ছে বলে অভিযোগ ওঠে।

তার-ও ব্যাখ্যা এ দিন দিয়েছে সেনা। তারা জানিয়েছে, লেহ্ হাসপাতালকে কোভিড হাসপাতাল হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছে। এর পরই সেখানকার একটি ভিডিয়ো হলকে হাসপাতালের ওয়ার্ডে রূপান্তরিত করা হয়। আগে ওই হলে প্রশিক্ষণ দেওয়া হত।