অবশেষে অন্তঃসত্ত্বা মুসলিম ছাত্রী সফুরা জারগারের জামিন, মুক্তির অপেক্ষা

ভারতের রাজধানী দিল্লির দাঙ্গায় ইন্ধন দেয়ার অভিযোগে আটক অন্তঃসত্ত্বা মুসলিম ছাত্রী সফুরা জারগারকে অবশেষে জামিন দেয়া হয়েছে।

দেশটির সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, সফুরার মুক্তির বিষয়ে পুলিশ ‘মানবিক কারণে’ বিরোধিতা না করায় মঙ্গলবার ভারতের হাইকোর্ট তাকে জামিন দিয়েছে।

এপ্রিলে যখন জারগারকে গ্রেফতার করা হয় তখন তিনি তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন।

তাকে আটক করে কারাগারে পাঠানোর ঘটনায় ভারতের বাইরেও ক্ষোভ ও উদ্বেগ তৈরি হয়।

জামিয়া মিলিয়ার এমফিল পড়ুয়া সাফুরা ২৩ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা। পুলিশের প্রতিনিধিত্বকারী সলিসিটার জেনারেল তুষার মেহতা মানবিক কারণে তার জামিনের বিরোধিতা করেননি।

তুষার মেহতা জানান, মানবিক কারণে নিয়মিত জামিনে তাকে মুক্তি দেওয়া যেতে পারে তবে মামলার যোগ্যতা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি।

সোমবার দিল্লি পুলিশ অবশ্য সাফুরা জারগারের জামিনের আবেদনের বিরোধিতা করে বলে যে ‘সাফুরার গর্ভধারণের সত্যতা দিয়ে তার অপরাধের তীব্রতা কোনোভাবেই হ্রাস করা যায় না।’

দিল্লি পুলিশ সাফুরার জামিনের বিরোধিতা করে স্ট্যাটাস রিপোর্টে জানিয়েছে যে তার বিরুদ্ধে একটি ‘স্পষ্ট ও জোরালো মামলা’ রয়েছে এবং তার বিরুদ্ধে ‘গুরুতর অপরাধের পরিকল্পনা ও অপরাধ কার্যকরের মামলা রয়েছে’।

পুলিশ তাকে দিল্লি দাঙ্গার অন্যতম ইন্ধনদাতা হিসেবে চিহ্নিত করলেও এমন অভিযোগ সবসময় অস্বীকার করেছে সফুরা জারগারের পরিবার।

তারা বলছে, সফুরা শুধু নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ বিক্ষোভে অংশ নিয়েছিলেন।

গত ফেব্রুয়ারিতে দিল্লিতে মুসলিমদের ওপর হিন্দু সন্ত্রাসীদের হামলায় অন্তত ৫৩ জন শহীদ হন।

Previous post বেইজিংকে পাকিস্তানের মতো মনে না করতে ভারতকে চীনের হুঁশিয়ারি
Next post ভারত দখলকৃত কাশ্মীর সমাধানে এগিয়ে আসতে ওআইসি-র প্রতি পাকিস্তানের আহ্বান