কাশ্মীরিদের কণ্ঠ রোধ করতে পারলেও তাদের মন মুক্তই থাকবে: মাহমুদ কোরেশি

পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরেশি বলেছেন, গত বছর ৫ আগস্ট অধিকৃত কাশ্মীরকে ভারতের সঙ্গে যুক্ত করতে নয়া দিল্লীর উদ্যোগ কাশ্মীরের প্রত্যেক অধিবাসী দ্ব্যর্থহীনভাবে প্রত্যাখ্যান করেছে। তিনি জোর দিয়ে বলেন, নয়া দিল্লী শক্তি দিয়ে কাশ্মীরিদের কণ্ঠ রোধ করতে পারলেও তাদের মন মুক্তই থাকবে।

গত সোমবার (৩ আগস্ট) আজাদ কাশ্মীরের লাইন অব কন্ট্রোলের (এলওসি) কাছে চিরিকোট সেক্টর পরিদর্শনকালে তিনি এই মন্তব্য করেন।

কোরেশির সঙ্গে এসময় প্রতিরক্ষামন্ত্রী পারভেজ খাট্টাক, জাতীয় নিরাপত্তা বিষয়ে প্রধামন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ড. মুইদ ইউসুফ, পাকিস্তান সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা ও সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন। এসময় নিয়ন্ত্রণ রেখায় ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন সম্পর্কে পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে ব্রিফ করা হয়।

এলওসির কাছাকাছি গ্রামগুলোর অধিবাসীদের এক সমাবেশে বক্তব্যকালে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ভারতীয় বাহিনী তাদের বুলেট দিয়ে নিরস্ত্র ‍ও নিরপরাধ লোকজনকে টার্গেট করে।

তিনি বলেন, আপনারা দুর্ভোগের মধ্যেও নিজেদের অবস্থানে অটল থাকার জন্য আপনাদেরকে স্যালুট। আপনাদের মনোবল উঁচু রয়েছে এবং আপনারা নিজেদের বাড়িঘর ফেলে যাননি। আর এটা হলো উপত্যকার প্রতি আপনাদের অঙ্গীকার ও আপনাদের যোগাযোগ। আপনাদের জয় হবেই কারণ আপনারা সত্যের পক্ষে রয়েছেন। বিশ্ব এটা জানে।

কোরেশি বলেন, অধিকৃত কাশ্মীরকে ভারতের সঙ্গে যুক্ত করার সিদ্ধান্ত কোন কাশ্মীরি মেনে নেয়নি। তাদেরকে আটকে রাখা হয়েছে… কিন্তু মন ও হৃদয়কে বেধে রাখা যায় না।

গ্রামবাসীদের তিনি বলেন, ইসলাবাদের কাশ্মীর হাইওয়ের নাম বদলে শ্রীনগর হাইওয়ে রাখা হয়েছে কারণ আমাদের গন্তব্য হলো শ্রীনগর।

পাকিস্তান সরকার ৫ আগস্টকে ইয়াওমি ইস্তেসাল বা শোষণ দিবস হিসেবে পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

সূত্র: সাউথ এশিয়ান মনিটর ও ডন