মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনায় সৌদির কঠোর সমালোচনা করলো ২৯টি দেশ

জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদের বৈঠকে পাশ্চাত্যের ২৯টি দেশ মানবাধিকার লঙ্ঘনের জন্য সৌদি আরবের কঠোর সমালোচনা করেছে। এছাড়া, প্রখ্যাত সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যার সঙ্গে সৌদি আরবে যেসব নাগরিক জড়িত তাদেরকে শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন এসব দেশ।

মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদে নিযুক্ত ডেনমার্কের রাষ্ট্রদূত কারস্টেন স্টাউর একটি বিবৃতি পড়ে শোনান যাতে ২৯টি দেশ সৌদি আরবের বিশিষ্ট সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যার ন্যায়বিচার দাবি করেছে। এসব দেশ আবারো বলেছে, স্বচ্ছতার সঙ্গে বিচার করতে হবে এবং যারা এই বর্বর হত্যাকাণ্ডের জন্য দায়ী তাদেরকে যথাযথ শাস্তির আওতায় আনতে হবে।

২০১৮ সালের অক্টোবর মাসে তুরস্কের ইস্তাম্বুল শহর সৌদি কনস্যুলেট ভবনে জামাল খাশোগিকে বর্বরভাবে হত্যা করা হয়। এরপর এই নিয়ে তিনবার এসব দেশ যৌথভাবে ওই হত্যাকাণ্ডের বিরুদ্ধে যৌথ বিবৃতি দিল।

সৌদি যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমানের নির্দেশে জামাল খাশোগিকে হত্যা করা হয়েছে বলে জোরালো অভিযোগ রয়েছে।
গতকালের বিবৃতিতে এসব দেশ সৌদি আরবে আরো নানা ধরনের মানবাধিকার লঙ্ঘনের জন্য সরকারের সমালোচনা করে। বিবৃতিতে তারা বলেছে, “সৌদি আরবে নির্যাতন, উদ্দেশ্যমূলক আটক, গুম এবং বিচারবিহীন আটকাদেশের যেসব ঘটনা সৌদি আরবে ঘটছে তাতে আমরা গভীরভাবে উদ্বিগ্ন।”