রাজধানীতে আন্দোলনরত শিক্ষকদের ওপর পুলিশের লাঠিচার্জ, জলকামান নিক্ষেপ

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষকের শূন্য পদে নিয়োগের দাবির পাঁচ দিনের মাথায় আন্দোলনকারীদের ওপর পুলিশ জলকামান নিক্ষেপ ও লাঠিপেটা করেছে। এতে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

এদিকে লাঠিপেটার কথা পুলিশ অস্বীকার করেছে।

মিরপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুস্তাজিজুর রহমান বলেন, ‘এখানে কোনো লাঠিচার্জের ঘটনা ঘটেনি। তবে আন্দোলনকারীরা রাস্তা অবরোধ করে রাখায় তাদের সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। সে সময় জলকামান ব্যবহার করা হয়। এ ছাড়া আর তেমন কিছু ঘটেনি সেখানে।’

বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর মিরপুরে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সামনে রাস্তা অবরোধ করে অবস্থান নেওয়া আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের এই ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

সহকারী শিক্ষকের শূন্য পদে নিয়োগের দাবিতে আন্দোলনকারীরা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের কাছাকাছি এলেই আন্দোলনকারীদের ওপর জলকামান নিক্ষেপ করে পুলিশ। সে সময় লাঠিপেটা করতেও দেখা যায়।

২০১৮ সালে একটি বিশেষ প্যানেলের মাধ্যমে প্রাথমিক সহকারী শিক্ষকের শূন্য পদে নিয়োগের জন্য সুপারিশপ্রাপ্ত হন এসব আন্দোলনকারী। আন্দোলনের পাঁচ দিনের মাথায় পুলিশের আক্রমণে ছত্রভঙ্গ হয়ে যান তাঁরা, ছুটতে থাকেন চারদিকে। সে সময় একজনকে রাস্তায় ওপর পড়ে ছটফট করতে দেখা যায়। একজনকে আহত ব্যক্তিকে পাজাকোলা করে একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় তুলতেও দেখা গেছে। এই মারধরের ঘটনায় আহত হন অন্তত ১০ জন।