Breaking News

শহীদ বাবরী মসজিদ মামলার রায়: আসামীদের খালাস দিয়েছে মোদির বিশেষ আদালত

ইনসাফ | নাহিয়ান হাসান


উগ্র হিন্দুত্ববাদী ভারত সরকার নিয়ন্ত্রিত লৌক্ষ্ণোর এক বিশেষ আদালত ঐতিহাসিক শহীদ বাবরী মসজিদ ধ্বংস মামলার আসামীদের বেকসুর খালাস দিয়েছে।

বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) উগ্র হিন্দুত্ববাদী মোদি সরকার নিয়ন্ত্রিত লৌক্ষ্ণোর বিশেষ আদালত এই বিষয়ে নিজেদের রায় প্রকাশ করে।
রায়ে বলা হয়, ১৯৯২ সনে ষোড়শ শতাব্দীর ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদ সংক্রান্ত হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের দাঙ্গাটি পূর্ব পরিকল্পিত ছিল না। তাছাড়া, এই বিষয়ে পর্যাপ্ত ও যথাযথ দলিল-প্রমাণ না থাকায় ভারতীয় জনতা পার্টি বিজেপির সিনিয়র নেতাদের বেকসুর খালাস দেওয়া হল।

এর আগে ভারতের শীর্ষ তদন্ত সংস্থা সিবিআইয়ের বিচারিক আদালত ২৮ বছরের পুরোনো এই মামলার অভিযুক্ত ব্যক্তিদের খালাসের রায় দিয়েছিল যাদের মধ্যে ৯২ বছর বয়সী ভারতের সাবেক উপ প্রধানমন্ত্রী লাল কৃষ্ণ আদভানীও রয়েছেন। তিনি ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির এককালীন পরামর্শদাতাও ছিলেন বটে।

১৯৯২ সালে লৌক্ষ্ণোর অযোধ্যায় অবস্থিত ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদ ধ্বংস ও সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা [যেখানে প্রায় ২০০০ মুসলিমকে শহীদ করা হয় উসকে দেওয়ার অভিযোগে উগ্র হিন্দুত্ববাদী সন্ত্রাসী রাজনৈতিক দল বিজেপির শীর্ষস্থানীয় ৩২ জন নেতার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছিল।

মামলায় খালাস প্রাপ্তদের মধ্যে হিন্দুত্ববাদী সন্ত্রাসীদের রাজনৈতিক সংঘটনটির অন্যান্য প্রবীণ নেতারা হলেন, সাবেক মন্ত্রী মুরলি মনোহর যোশি, উমা ভারতী, বিনয় কাটিয়ার এবং উত্তর প্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কল্যাণ সিংহ।

দীর্ঘ আইনী লড়াইয়ে মসজিদ ধ্বংস ও সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় আসামীদের সংশ্লিষ্টতা প্রমাণিত না হওয়ায় খালাসের বিষয়টি উল্লেখ করে ভারতীয় প্রতিরক্ষা খাতের বিশেষ আইনজীবী মনীশ কুমার ত্রিপাঠী সাংবাদিকদের বলেন, বাদীপক্ষের সাক্ষী ও প্রমাণ যথেষ্ট শক্তিশালী না হওয়ায় আদালত তা গ্রহণ করে নি।

প্রতিরক্ষা খাতের আরেকজন অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, অভিযুক্তদের অভিযোগ প্রমাণে আদালতে যে সমস্ত অডিও ও ভিডিও দাখিল করা হয়েছিল তদন্তকারী দল তার সত্যতা প্রমাণ করতে ব্যর্থ হয়েছে। তাছাড়া অভিযুক্তদের অভিযোগ সংক্রান্ত প্রমাণগুলো যথেষ্ট না হওয়ায় মাননীয় বিচারক তা খারিজ করে দিয়েছেন।

উগ্র হিন্দুত্ববাদী বিজেপির শীর্ষ চার নেতা আদভানী,জোশি, উমা ভারতী ও কল্যাণ সিংহ বলেন, ক্ষোভে ফুঁসতে থাকা হিন্দুধর্মাবলম্বীদের স্বতঃস্ফূর্ত আন্দোলনের ফলে বাবরি মসজিদ ধ্বংস ও ভয়াবহ দাঙ্গাটি সংঘটিত হয়েছিল।

অলইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল-বোর্ডের আইনজীবী জাফরয়াব জিলানী বলেন, বুধবারের আইনী লড়াইয়ে উগ্র হিন্দুত্ববাদী মোদি সরকার নিয়ন্ত্রিত বিশেষ আদালত আমাদের কোনো যুক্তি প্রমাণ ও সাক্ষীই আমলে নেয় নি।

আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে দেওয়া বক্তব্যে তিনি বলেন, এটি আইন ও সাক্ষী বিরুদ্ধ একটি ভ্রান্ত রায়। উচ্চ আদালতে খালাসের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করার মাধ্যমে আমরা এর প্রতিকার চাইবো।

উল্লেখ্য, উগ্র হিন্দুত্ববাদী মোদি সরকারের অবৈধ ও বেআইনী হিন্দুত্ববাদী এজেন্ডা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট গত বছর ঐতিহাসিক শহীদ বাবরি মসজিদের স্থানে মন্দির নির্মাণ সংক্রান্ত একটি চরম বিতর্কিত রায় দেয় যা আন্তর্জাতিক মহলে ব্যাপক সমালোচিত হয়।

About |

Check Also

করোনার সংক্রমণ কমলে মুসলিম বিরোধী সিএএ কার্যকরের ঘোষণা হিন্দুত্ববাদী নাড্ডার

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কমে গেলে মুসলিম বিরোধী ‘সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন’ (সিএএ) কার্যকর করা …