কোটি কোটি মানুষ বেকার, আর সরকারের মুখে উন্নয়নের জোয়ার: রিজভী

দেশে এখন কোটি-কোটি মানুষ বেকার, আর সরকারের মুখে উন্নয়নের জোয়ার বইছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বুধবার (৮ জুলাই) দুপুরে নয়াপল্টনে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন রিজভী।

তিনি বলেন, কোটি কোটি মানুষ বেকার। সুদে টাকা নিয়ে বাড়িভাড়া পরিশোধ করে ঢাকা ছাড়ছে মানুষ। আর সরকারের মুখে উন্নয়নের জোয়ার বইছে। যাদের জন্ম ঢাকায় তারাও এখন গ্রামে চলে যাচ্ছে। নিম্ন আয়ের মানুষদের উপার্জন বন্ধ থাকায় বৌ-বাচ্চাদের গ্রামে পাঠিয়ে দিচ্ছে। আর মন্ত্রীরা বলছেন- বাংলাদেশ এখন সিঙ্গাপুরকে ছাড়িয়ে গেছে, এই উন্নয়ন গেলো কোথায়?’

তিনি বলেন, চালের মৌসুমেও মোটা চালের কেজি ৪০-৪৫ টাকা। শাক-সবজির দাম স্বল্প আয়ের মানুষের নাগালের বাইরে। মানুষের ঘরে খাবার খাদ্য নেই, চিকিৎসার সামর্থ্য নেই। ফলে সুদে টাকা নিয়ে ঢাকা ছাড়ছে মানুষ। ইতোমধ্যে ৩০-৪০ শতাংশ মানুষ ঢাকা ছেড়ে দিয়েছে। এর ফলে বিপাকে পড়েছে বাড়িওয়ালারাও।

রিজভী বলেন, প্রধানমন্ত্রীসহ মন্ত্রীরা বদমেজাজের ঘোরে দেশ চালাতে গিয়ে মত প্রকাশের স্বাধীনতার বিরুদ্ধে কালাকানুন প্রয়োগ করছে। জনগণের প্রতি ক্রুদ্ধ সরকার যেন তাদের ওপর প্রতিশোধ নিচ্ছে। তাদের প্রণীত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মতোই সব কালাকানুন, বিদ্বেষ ও সংকীর্ণতারই বহিঃপ্রকাশ।

রিজভী আরও বলেন, আওয়ামী লীগের নিজস্ব একটা পরিমার্গ আছে। সেটি হলো বহুদলীয় গণতন্ত্রকে সহ্য না করা। তাদের ঐতিহ্যই হচ্ছে ছলেবলে কৌশলে ক্ষমতায় এসে গণতন্ত্রের আলোকে কেড়ে নিয়ে নিজেদের দলীয় শাসনকে রাষ্ট্রশক্তি দিয়ে প্রতিষ্ঠা করা। এখানে ভিন্ন দল ও মতের অস্তিত্বকে তারা কোনও ক্রমেই মেনে নিতে পারে না। তারা মনে করে আওয়ামী লীগ ও রাষ্ট্র অভিন্ন একটি সত্ত্বা।