কাশ্মীরিদের সংগ্রামে সমর্থন অব্যাহত থাকবে: পাকিস্তান

কাশ্মীরে শহীদ দিবস উপলক্ষে সেখানকার অধিবাসীদের প্রতি আবারো দৃঢ় সমর্থন ঘোষণা করেছে পাকিস্তান।

দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, কাশ্মিরী জনগণ ভারতের বলদর্পী নীতির বিরুদ্ধে যে সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছে তার প্রতি ইসলামাবাদের সমর্থন অব্যাহত থাকবে। কাশ্মীরের ৭৯তম শহীদ দিবস উপলক্ষে পাকিস্তান এ বিবৃতি দিয়েছে।

১৯৩১ সালের ১৩ জুলাই ডোগরা শিখ শাসকের বাহিনীর গুলিতে অন্তত ২২ জন মুসলিম শহীদ হন। এ কারণে কাশ্মীরে প্রতি বছর ১৩ জুলাই শহীদ দিবস হিসেবে পালিত হয়।

পাকিস্তানের বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, কাশ্মীরিদের ওপর ভারতীয় বাহিনীর হামলা এবং হত্যা-নির্যাতন অব্যাহত রয়েছে যা নিন্দনীয়। ইসলামাবাদ সেখানকার জনগণকে রক্ষায় এগিয়ে আসতে আন্তর্জাতিক সমাজের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। বিবৃতিতে বিশ্বসমাজের উদ্দেশে বলা হয়েছে, কাশ্মীরের মজলুম মানুষদের জীবন রক্ষায় সবাই এগিয়ে আসুন।

২০১৯ সালের ৫ আগস্ট জম্মু-কাশ্মীরে বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে ভারতের সরকার সেখানে ‘নিরাপত্তা ব্যবস্থা’ আগের চেয়ে আরও কঠোর করেছে।

ভারত দখলকৃত কাশ্মীরে বছরের পর বছর ধরে হাজার হাজার ভারতীয় সেনা মোতায়েন রয়েছে। গত তিন দশকে সেখানে হাজার হাজার মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে।

কাশ্মীরের জনগণ সেখানে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ইশতেহার বাস্তবায়নের দাবি জানিয়ে আসছে। নিরাপত্তা পরিষদের ইশতেহারে গণভোটের মাধ্যমে কাশ্মীর অঞ্চলের ভবিষ্যত নির্ধারণের কথা বলা হয়েছে। কিন্তু ভারত সরকার জাতিসংঘের ইশতেহার বাস্তবায়ন করতে অসম্মতি জানিয়ে আসছে। এ কারণে ভারত সরকার এখন পর্যন্ত সেখানে গণভোট আয়োজন করেনি।