আসছে ইউজিসির নতুন নির্দেশনা: বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ও পরীক্ষা অনলাইনে

মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে উচ্চশিক্ষা যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়কে অনলাইনে পরীক্ষা এবং ভর্তির সুযোগ দিয়েছে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)।

বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) বিকালে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের এক অনলাইন সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়।

এবিষয়ে ইউজিসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক কাজী শহীদুল্লাহ গণমাধ্যমকে বলেন, ‘অনলাইনের দিকেই এখন মনোযোগের দিতে হবে। তবে দেশে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অনলাইনের সুযোগ-সুবিধা কম। কিছু বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রম চালানোর সুযোগ রয়েছে। তাই বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো যাতে অনলাইনেই পরীক্ষা এবং ভর্তি কার্যক্রম চালাতে পারে সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘দেশের পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরাও সভায় ছিলেন। আমরা চেষ্টা করেছি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো যাতে ক্ষতির মুখে না পড়ে। করোনাভাইরাস চলাকালে অন্তত একটি সেমিস্টারের শিক্ষা কার্যক্রম যাতে ঠিকভাবে পরিচালনা করতে পারে সেজন্য তারা পরীক্ষা কীভাবে নেবে, সে বিষয়ে করণীয় ঠিক করে দেয়া হবে। পাশাপাশি আগামী সেমিস্টারের ভর্তি কত তারিখ থেকে কত তারিখ পর্যন্ত চলবে সে বিষয়ে পূর্ণাঙ্গ গাইডলাইন আগামী সপ্তাহে দেয়া হবে।’

এদিকে ইউজিসি সূত্রে জানা গেছে, অনলাইনে ক্লাস, সেমিস্টার ফাইনাল ও অন্যান্য পরীক্ষা এবং ভর্তি কার্যক্রম চালানোর সুযোগ থাকলেও শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টিউশন ফি আদায়ের ক্ষেত্রে অভিভাবকদের কোনো ধরনের চাপ দিতে পারবে না বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে। এছাড়া এই সময়ে কোনো শিক্ষক-কর্মকর্তার চাকরিচ্যুত করা যাবে না এবং বেতনভাতা প্রদানের ব্যাপারে উদ্যোগী হতে হবে।

অনলাইন সভায় শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক কাজী শহীদুল্লাহসহ বেশ কয়েকটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।