সিলেটে ৫০০ শয্যার করোনা হাসপাতাল চেয়ে মেয়র আরিফের চিঠি

সিলেটে দিন দিন করোনা রোগীদের সংখ্যা বাড়ছে। সাথে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যা।

এরমধ্যে বিভিন্ন সংকটের কারণে বিনাচিকিৎসায় মৃত্যুর ঘটনাও ঘটছে।

এমন পরিস্থিতিতে কিছুদিন আগে করোনা চিকিৎসার জন্য সিলেটে বেসরকারি দু’টি হাসপাতাল অধিগ্রহণের কথা বলা হলেও শেষ পর্যন্ত তা হয়নি।

এদিকে নগরীতে অবস্থিত শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে হচ্ছে করোনা রোগীদের চিকিৎসা। কিন্তু সেখানেও রয়েছে নানা অভিযোগ।

এ অবস্থায় সিলেটে করোনার রোগীদের জন্য ৫০০ শয্যার হাসপাতাল চেয়ে দুই মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠিয়েছেন সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।

মঙ্গলবার (৯ জুন) স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ও সিলেট-১ আসনের সাংসদ পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বরাবরে এ চিঠি প্রেরণ করেন তিনি।

সিটি করপোরেশন সূত্র জানিয়েছে, চিঠিটি মঙ্গলবার বিকেলে ই-মেইলে ও ডাকযোগে দুই মন্ত্রীর কাছে পাঠানো হয়েছে। এ চিঠির অনুলিপি সিলেট বিভাগীয় কমিশনার বরাবরেও প্রেরণ করা হয়।

চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘করোনাভাইরাস সংক্রমণের শুরু থেকে ১০০ শয্যার সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে সরকারিভাবে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু যে হারে রোগী বাড়ছে, তাতে সরকারিভাবে ৫০০ শয্যার হাসপাতাল এখন প্রয়োজন। এটি হতে পারে সরকারি ও বেসরকারি কোনো হাসপাতালকে একীভূত করে সরকারিভাবে চিকিৎসা সেবা দেওয়ার মাধ্যমে।’

চিঠিতে আরও বলা হয়, ‘বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসা ব্যয় নিম্ন ও নিম্নমধ্যবিত্ত মানুষজনের জন্য সহনীয় নয়। তাই সরকারি চিকিৎসা সেবা দেওয়ার ক্ষেত্র বাড়াতে হবে। তা না হলে মানবিক বিপর্যয় দেখা দেবে।’

এ বিষয়ে সিলেটে সিটি কর্পোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. জাহিদুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, সিলেটের করোনা পরিস্থিতি খুবই খারাপ। এই অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে মেয়র মহোদয় সিলেটের জন্য ৫০০ শয্যার হাসপাতাল চেয়ে দুই মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিয়েছেন। চিঠির উত্তর এখনও আসেনি বা এ বিষয়ে কিছু এখনও জানা যায়নি। সিলেটের বর্তমান অবস্থা বিবেচনা করে এই চাওয়াটা সরকারের পক্ষ থেকে পূরণ করা উচিৎ।