নতুন করে ভারত সীমান্তে বাড়তি সেনা ও ভারী অস্ত্র মোতায়েন করেছে চীন

ঐকমত্যের ভিত্তিতে লাদাখের কয়েকটি এলাকায় ভারত ও চীনের সেনা পিছু হটছে বলে জানিয়েছিলেন দু’দেশের সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

কিন্তু নতুন করে আজ আবার বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে জানানো হয়েছে, লাদাখ থেকে অরুণাচল প্রদেশ পর্যন্ত গোটা প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় বাড়তি সেনা মোতায়েন করেছে চীন।

সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে উদ্ধৃত করে প্রকাশ করা এই খবরেও মোদী সরকারের শীর্ষ সূত্রের কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

এতে জানানো হয়েছে, হিমাচল প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, সিকিম ও অরুণাচল প্রদেশেও নিয়ন্ত্রণরেখার কাছে বাড়তি সেনা ও ভারী অস্ত্র মোতায়েন করেছে চীন। কেবল লাদাখেই ১০ হাজার সেনা মোতায়েন করেছে তারা। এনেছে দূরপাল্লার কামান ও ট্যাঙ্কও।

ওই ভারী অস্ত্রশস্ত্র আগে সরানোর দাবি করেছে ভারত। ভারতীয় সেনার মতে, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় উত্তেজনা কমাতে এই পদক্ষেপ প্রয়োজন। নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর চীনা সেনা মোতায়েনের খবর ছড়িয়ে পড়ায় নয়া বিতর্ক শুরু হয়েছে।

কূটনৈতিক ও সামরিক আলোচনার মাধ্যমে লাদাখে চীনের সঙ্গে উত্তেজনা কমানোর চেষ্টা করছে ভারত। গত কালও দু’দেশের সেনার ডিভিশনাল কমান্ডার স্তরে বৈঠক হয়েছে।

Previous post বৃটেন থেকেও ভারতকে বেশি আক্রান্ত করল করোনাভাইরাস
Next post মাওলানা নুরুল ইসলামের সুস্থতা কামনায় দেশবাসীর নিকট দুআর আবেদন