স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় দুর্বলতা নিয়ে চীনের ‘বিরল স্বীকারোক্তি’

করোনাভাইরাস মহামারী আকার ধারণ করার পর চীনের দেশটির স্বাস্থ্য ব্যবস্থার দুর্বলতা বেরিয়ে এসেছে।

দেশটির এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা চীনা গণমাধ্যমকে এমন তথ্য দিয়েছেন।- খবর বিবিসির।

ভাইরাসটির প্রাদুর্ভাবের প্রথম দিকে চীনা পদক্ষেপ নিয়ে দেশের বাইরে ব্যাপক সমালোচনার মধ্যেই জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের পরিচালক লি বিনের এমন বিরল স্বীকারোক্তি এসেছে।

তিনি বলেন, দেশটি এখন জনস্বাস্থ্য ব্যবস্থার, উপাত্ত সংগ্রহ ও রোগপ্রতিরোধের ক্ষেত্রে উন্নতি করছে।

মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে উত্তর কোরিয়াকেও সহায়তার প্রস্তাব দিয়েছে চীন।

সাংবাদিকদের এই কর্মকর্তা বলেন, চীনা সরকারের জন্য এই মহামারী উল্লেখযোগ্য প্রতিকূলতা নিয়ে আসবে। কাজেই আমরা কীভাবে বড় মহামারী মোকাবেলা করবেই সেই দুর্বলতার দিকগুলো বের হয়ে এসেছে।

বিবিসির এশীয় প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের সম্পাদক সেলিয়া হ্যাটন বলেন, ভুল স্বীকার করা চীনা নেতৃত্বের ক্ষেত্রে একেবারেই বিরল ঘটনা।

লি বিন বলেন, বিভিন্ন সিস্টেমকে কেন্দ্রীভূত করতে চীন তার সমস্যাগুলোকে সমাধান করে ফেলবে। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ও বিশাল তথ্য ভাণ্ডারকে কাজে লাগিয়ে দূর্বলতাগুলোর সমাধান বের করা হবে।

এদিকে উহানে প্রথমে যখন ভাইরাস দেখা দেয়, তখন তা প্রতিরোধে চীন খুবই ধীর গতিতে পদক্ষেপ নেয়। এ বিষয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে দ্রুত সতর্ক করতে তাদের ব্যর্থতার অভিযোগ রয়েছে।

এমনকি ভাইরাসের আসল উৎস খুঁজে বের করতে একটি স্বাধীন আন্তর্জাতিক তদন্তের আহ্বান প্রত্যাখ্যান করেছে চীন।

Previous post সিলেটে আরও ৭ জনের করোনা শনাক্ত
Next post মাস্ক পরা পুরুষত্বহীনতার শামিল!