মাওলানা ইদরিস রহ. এর ইন্তেকালে মুফতী আব্দুল হালীম বোখারীর গভীর শোক প্রকাশ

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | মাহবুবুল মান্নান


আল-জামিয়াতুল আরাবিয়া নসীরুল উলূম (নাজির হাট বড় মাদরাসা)-এর মুহতামিম ও শায়খুল হাদীস মাওলান্ মুহাম্মদ ইদরিস রহ.-এর ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন আল-জামিয়া আল-ইসলামিয়া পটিয়ার মুহতামিম ও শায়খুল হাদীস মুফতী আব্দুল হালীম বোখারী।

জামেয়া পটিয়ার ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ও গণমাধ্যমে প্রেরিত এক শোকবার্তায় মুফতী বোখারী বলেন, নাজির হাট বড় মাদরাসা দেশের একটি প্রাচীনতম দীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। সেখানকার শায়খুল হাদীস ও মুহতামিম ছিলেন মাওলানা মুহাম্মাদ ইদরিস রহ.। তিনি সেখানে প্রায় ১৬ বছর যাবত মুহতামিম হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তিনি ছিলেন একজন দক্ষ হাদীস বিশারদ ও প্রাজ্ঞ পরিচালক এবং তিনি ছিলেন একজন খোদাভীরু মুখলিস ব্যক্তিত্ব। জীবনের সর্বক্ষেত্রে তিনি একনিষ্ঠতার সাথে কাজ আঞ্জাম দিয়ে গেছেন। তিনি মাদরাসার জন্য নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে যান। তাঁর অক্লান্ত মেহনত-প্রচেষ্টায় নাজির হাট বড় মাদরাসার পড়ালেখা এবং আর্থিক অগ্রগতি; উভয় ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নতি সাধিত হয়েছে।

শোকবার্তায় মুফতী আব্দুল হালীম বোখারী আরো বলেন, আমি নাজির হাট বড় মাদরাসার শুরা কমিটির সদস্য। মজলিসে শুরায় মাদরাসার আর্থিক ও একাডেমিক রিপোর্ট পেশ করা হত। তিনি প্রায় ১৬ বছর যাবত মাদরাসা পরিচালনার দায়িত্ব পালন করেন। এ দীর্ঘ সময়ে তাঁর কোন অনিয়ম চোখে পড়েনি। তিনি আমাকে খুবই ভালোবাসতেন। আমাদের জামিয়া পটিয়ায় তাশরীফ আনতেন। জামিয়ার বার্ষিক সভা সহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতেন। তাঁর গুরুত্বপূর্ণ দিকনিদের্শনা ও পরামর্শ দ্বারা দেশ ও জাতি উপকৃত হত। তিনি একজন দক্ষ আলেমে দীন ও বিজ্ঞ হাদীস বিশারদ ছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে যে শূণ্যতা সৃষ্টি হয়েছে তা পূরণ হওয়া বড় দুষ্কর।

আমরা দোয়া করি, আল্লাহ যেন তাঁর মর্যাদা বৃদ্ধি করেন, তাঁকে জান্নাতুল ফিরদাউসের উচ্চ মকাম দান করেন, তাঁর খেদমাতগুলো কবুল করেন এবং তাঁর প্রতিষ্ঠানের হেফাজত করেন। আর তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবার-পরিজনের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করছি। আল্লাহ যেন তাঁদেরকে সবরে জমীল নসীব করেন, আমীন।