মানুষ নফল নামাজ পড়ে আমার জন্য দোয়া করছে: ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত।

দেশের মানুষের কোভিড-১৯ শনাক্তে কিট আবিস্কারে অগ্রণী ভূমিকা রাখা প্রবীণ এই চিকিৎসক এখন আইসোলেশনে আছেন।

রোবার প্রথম গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত কিটে এই মুক্তিযোদ্ধার করোনা শনাক্ত হয়। এরপর বৃহস্পতিবার বিএসএমএমইউর পিসিআর পরীক্ষায়ও করোনা শনাক্ত হয় তার।

৭৯ বছর বয়সী জাফরুল্লাহ চৌধুরী মঙ্গলবার প্লাজমা থেরাপি নিয়েছেন। তার সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানায় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র।

আইসোলেশনে থাকা ডা. জাফরুল্লাহ বৃহস্পতিবার কথা বলেন গণমাধ্যমের সঙ্গে।

তিনি জানান, অনেকেই তাকে ফোন করছেন। তারা তার রোগমুক্তি কামনায় নামাজ পড়ে আল্লাহর কাছে দোয়া করছেন।

জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, দেশ-বিদেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে মানুষজন প্রতিদিন ফোন করে আমার স্বাস্থ্যের খোঁজ-খবর নিচ্ছে। একজন টেলিফোন করে বলেছেন যে, তিনি এমনিতে নামাজ পড়েন না, আমার জন্য তিনি নামাজ পড়ছেন। আমার করোনার কথা শুনে তিনি নামাজ পড়ে আল্লাহর কাছে আমার রোগমুক্তি কামনায় দোয়া করছেন।আমি একথা শুনে অবিভূত হয়েছি।

তিনি আরও বলেন, একজন ইউএনও টেলিফোন করে বললেন যে, তিনি ও তার স্ত্রী আমার জন্য নফল নামাজ পড়ে দোয়া করেছে। তার কথা শুনে মনটা উজ্জীবিত হয়েছে।