চীনের প্রেসিডেন্ট ভেবে কোরিয়ার নেতার কুশপুত্তলিকা পোড়াল হিন্দুত্ববাদী বিজেপি

শত্রু-মিত্র কে, সেটাই ঠিক করে উঠতে পারেননি ভারতের হিন্দুত্ববাদী বিজেপি কর্মীরা। আর তাই তাদের প্রতিবাদ কর্মসূচি নিয়ে উঠল হাসির রোল। পোড়ানোর কথা ছিল চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিংপিনের কুশপুত্তলিকা। কিন্তু রোষে ওঠা হিন্দুত্ববাদী বিজেপি কর্মীরা শত্রু চিনতে ভুল করলেন। আর তাই উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের কুশপুত্তলিকা পোড়ানো হলো।

লাদাখ সীমান্তে গালওয়ান উপত্যকায় ভারত-চীন সংঘর্ষে এখন গোটা ভারতের মানুষ প্রতিবাদে নেমেছেন। ২৩ জন ভারতীয় সেনাকে নির্মমভাবে হত্যা করেছিলো চীন। করোনার মধ্যেও চীন বিরোধী বিক্ষোভ চলছে চারপাশে। বিক্ষোভের আঁচে হাত সেঁকতে নেমেছিলেন আসানসোলের হিন্দুত্ববাদী বিজেপি কর্মীরা।

সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজেপি কর্মীদের এই কাণ্ড ভাইরাল হয়েছে। অনেকেই বলছেন, আগে দেশের শত্রু কে তা ঠিক করুক বিজেপি! তারা এখনো শত্রুকেই ভালো করে চিনে উঠতে পারেনি। উত্তর কোরিয়ার সাথে এই মুহূর্তে ভারতের কোনো বিবাদ নেই। সমস্যা রয়েছে চীনের সাথে। এদিকে মূর্খ্যতার পরিচয় দিয়ে হিন্দুত্ববাদী এই বিজেপি কর্মীরা পুড়িয়ে বসলো উত্তর কোরিয়ার নেতার।

এমন একটা ভয়ঙ্কর ভুল করার পর হিন্দুত্ববাদী বিজেপি কর্মীরা একে অপরকে দোষ দিচ্ছেন।
রাগে ক্ষোভে সারা ভারতে যখন চীন বিরোধী স্লোগান উঠেছে, অনেকেই চীনা দ্রব্য, এমনকি চীনা খাবারও বয়কটের ডাক দিয়েছে, ঠিক সেই সময়ের স্রোতে গা ভাসাতে চেয়েছিলেন বিজেপি কর্মীরা। কিন্তু তাদের এমন ভুল আরো সমস্যা বাড়িয়ে দিল। হাসির খোরাক হয়ে উঠল বিজেপির বিরোধী কর্মসূচি।

সূত্র: জি নিউজ

Previous post সরকার জনগণের সাথে বছরের পর বছর ধাপ্পাবাজী করেছে: রিজভী
Next post করোনা থেকে ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন শহীদ আফ্রিদি