আল্লাহর নাফরমানী বেড়ে গেলে দুনিয়ায় প্রাণঘাতী যে কোনো মহামারী নেমে আসে : হাসানাত আমিনী

প্রাণঘাতী মহামারি করোনা ভাইরাস থেকে মুক্তিলাভে নফল রোযা ও দোয়া কর্মসূচী ঘোষণা করেছেন খেলাফতে ইসলামী বাংলাদেশের আমীর ও ইসলামী ঐক্যজোটের ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনী।

আজ বৃহস্পতিবার বাদ যোহর চকবাজারস্থ বড়কাটারা মাদরাসার নিজ কার্যালয়ে খেলাফতে ইসলামী বাংলাদেশের এক জরুরী সভায় এই কর্মসূচী ঘোষণা করেন।

সভায় তিনি বলেন, প্রাণঘাতী মহামারি কোভিড-১৯ ভাইরাসটির হাতের তালুতে ভাসছে প্রায় পুরো পৃথিবী। বিশ্বের অধিকাংশ দেশ ও অঞ্চলে হানা দিয়েছে করোনা। বাংলাদেশেও প্রতিদিন বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। মহামারি করোনার প্রতিরোধ ও প্রতিকারে পুরো বিশ্ব চিন্তিত ও পেরেশান।

মাওলানা হাসানাত আমিনী বলেন, আল্লাহর নাফরমানী বেড়ে গেলে দুনিয়ায় প্রাণঘাতী যে কোনো মহামারী নেমে আসে। করোনা বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া কেবল ভাইরাস নয়। বরং এটা নাফরমানীর কারণে অনেক বড় গজবও বটে। করোনা ভাইরাসে অস্থির, দুশ্চিন্তাগ্রস্ত ও ভয় না পেয়ে আল্লাহর সন্তুষ্টি ও তাঁর রহমতের আশায় সমল পাপাচার ছেড়ে দিয়ে নিজের গুনাহের জন্য অনুতপ্ত হয়ে আল্লাহমুখী হতে বেশি বেশি নফল রোযা ও তওবা করতে হবে।

তিনি বলেন, ইসলাম যে কোনো বিপদ-আপদ, অসুস্থতায় ধৈর্যধারণ ও আল্লাহর সাহায্য প্রার্থনার সঙ্গে চিকিৎসা গ্রহণ করতে দিক-নির্দেশনা দিয়েছে। তাই দেশের সর্বস্তরের মুসলমানদের প্রতি আহবান, আপনারা ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহণ ও নিয়মিত স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলুন। যে সব কারণে সংক্রামক ব্যাধি ছড়াতে পারে সেসব উপসর্গগুলো থেকে বেঁচে থাকুন ও তা পরিত্যাগ করুন। একই সঙ্গে ইমাম ও খতিবদের তত্ত্বাবধানে মসজিদে ফরয নামাযের পর বিশেষ খতম ও মুনাজাতের ব্যবস্থা করুন। সপ্তাহে কমপক্ষে দুই দিন নফল রোযা রাখার চেষ্টা করুন। ব্যাক্তিগতভাবে নফল নামায, কুরআন তিলাওয়াত, হাদীসে বর্ণিত দোয়া সমূহের নেক আমলের মাধ্যমে আল্লাহর সন্তুষ্টি ও নৈকট্য অর্জনের মাধ্যমে এ মহামারি থেকে পরিত্রাণ লাভের চেষ্টা করুন।

সভায় উপস্থিত ছিলেন- খেলাফতে ইসলামীর মহাসচিব মাওলানা ফজলুর রহমান, মুফতী সাইফুল ইসলাম, মাওলানা আলতাফ হোসাইন, মাওলানা আবুল খায়ের বিক্রমপুরী, মাওলানা মীর হেদায়েতুল্লাহ গাজী, মাওলানা মুনসুরুল হক, মাওলানা আনছারুল হক ইমরান, মাওলানা জাকির হোসাইন প্রমুখ। সভা শেষে করোনা ভাইরাস থেকে মুক্তিলাভে বিশেষ মুনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।