মোহনগঞ্জ ও বারহাট্টায় করোনায় মৃতদের দাফন-কাফনে প্রস্তুত ১০ যুবক

নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ ও বারহাট্টা উপজেলায় যদি কেউ (আল্লাহ্ না করুন) করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যায় তাহলে ওই মৃত ব্যক্তির দাফন- কাফন ও জানাজার ব্যবস্থা করার জন্য স্বেচ্ছায় তৈরি হয়েছেন মোহনগঞ্জ ও বারহাট্টার ১০ যুবক।

মরণঘাতি মহামারি করোনা ভাইরাসের ভয়ে আপনজনেরাও যখন দুরে চলে যায় ঠিক তখনি তারা এগিয়ে এসেছেন এমন একটি মহৎ কাজে। এই দুই উপজেলার আলেম ও শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে তাকওয়া ফাউন্ডেশন নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ১০ জন সদস্য এ কাজে স্বেচ্ছায় এগিয়ে আসেন। তাদের এমন উদ্যোগে মোহনগঞ্জ-বারহাট্টা উপজেলা প্রশাসন ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

সেচ্ছাসেবীদের মধ্যে বারহাট্টা উপজেলার চার জন হলেন, হাফেজ মাওলানা ইলিয়াস আহম্মেদ (জিম্মাদার), মুফতি জিয়াউর রহমান, ক্বারী সা’দ হাসান, শিক্ষার্থী মো. আরমান হুসাইন বাক্কী। আর মোহনগঞ্জ উপজেলার ছয়জন হলেন, হাফেজ নাজিম উদ্দিন, মাওলানা শুয়াইব বিন মুজিব, মুফতি নুরুজ্জামান, হাফেজ আব্দুল কাদির, হাফেজ ইলিয়াস জনি ও মো. মাসুদ রানা।

এ ব্যাপারে তাকওয়া ফাউন্ডেশনের জিম্মাদার হাফেজ মাওলানা ইলিয়াস আহম্মেদ বলেন, মোহনগঞ্জ ও বারহাট্টা উপজেলায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যদি কোনো নর-নারী ইন্তেকাল করেন তাহলে আমাদেরকে খবর দিলে আমরা মৃতের জানাজা ও দাফন কার্য সম্পন্নে ব্যবস্থা করব–ইনশাআল্লাহ্।

এ বিষয়ে মোহনগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ( ইউএনও) আরিফুজ্জামান গণমাধ্যমকে বলেন, তাকওয়া ফাউন্ডেশনের একটি দল আমার সাথে সাক্ষাত করেছে। তারা স্বেচ্ছায় করোনায় মৃতের জানাজা ও দাফনের কাজ করতে আগ্রহ দেখিয়েছে। তাদের এ উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পাশাপাশি প্রয়োজনে তাদের সাহায্য নেয়া হবে বলে জানা তিনি।