বৃদ্ধদের কান ধরিয়ে ছবি তোলার ঘটনায় এসিল্যান্ড সাইয়েমাকে প্রত্যাহার

যশোরের মণিরামপুরে তিন বৃদ্ধকে কান ধরিয়ে ছবি তোলার ঘটনায় তুমুল সমালোচনার মুখে এসিল্যান্ড (উপজেলা সহকারী কমিশনার-ভূমি) সাইয়েমা হাসানকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

আজ শনিবার (২৮ মার্চ) জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব শেখ ইউসুফ হারুন গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

জনপ্রশাসন সচিব বলেন, আমরা ওই কর্মকর্তাকে (সাইয়েমা হাসান) প্রত্যাহার করে বিভাগীয় কমিশনারের অফিসে সংযুক্ত করার জন্য বলেছি। সেটা করা হয়েছে।

তিনি বলেন, যে তিনজন সিনিয়র সিটিজেন সঙ্গে খারাপ আচরণ করা হয়েছে মণিরামপুরের ইউএনও (উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা) মিডিয়াকে নিয়ে তাদের বাড়ি যাচ্ছেন, এবং তাদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করবেন। তাদের যদি খাদ্য সহায়তা প্রয়োজন হয় সেটা দেবেন। এসিল্যান্ডকে সেখানে নেয়া হবে না, যেহেতু আমরা তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছি। তার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা গিয়ে স্যরি বলবেন।

শেখ ইউসুফ হারুন বলেন, আমরা খুবই দুঃখিত। যা ঘটেছে তাতে তার (সাইয়েমা হাসান) ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা হিসেবে তার পক্ষে আমাদের স্যরি বলা ছাড়া আর কোন উপায় নেই। তাদের আচরণের জন্য আমাদের বিব্রত হতে হয়। এই ঘটনায় আমরা অত্যন্ত ব্যথিত হয়েছি।

খুলনা বিভাগীয় কমিশনার ড. মু. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার বলেন, সাইয়েমা হাসানকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় প্রত্যাহার করেছে। তার স্থানে একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পাঠানো হয়েছে।

জনপ্রশাসন সচিব আরও বলেন, দেশের সব জেলা প্রশাসককে বলেছি, এমন ধরনের আচরণ যেন আর কারও সঙ্গে না করা হয়। করলে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিতে বলেছি।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার (২৭ মার্চ) করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে মাস্ক না পরায় তিন বৃদ্ধকে কান ধরিয়ে দাঁড় করে রেখে নিজের মোবাইলে ছবি ধারণ করছিলেন এসিল্যান্ড সাইয়েমা হাসান। এরপর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুমুল সমালোচনা শুরু করেন সবাই। বিষয়টিকে দুঃখজনক ও অনভিপ্রেত আখ্যা দিয়ে ছবিটি ভাইরাল করেছেন বিভিন্ন শ্রেণির পেশাজীবীরাও।