করোনার বিস্তার ঠেকাতে অস্ট্রেলিয়ায় শাটডাউন

করোনাভাইরাসের বিস্তাররোধে সারা দেশে শাটডাউন জারি করেছে অস্ট্রেলিয়া। ভাইরাসটিতে আক্রান্তের সংখ্যা দ্রুত বাড়তে থাকায় প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন এই ঘোষণা দিয়েছেন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এখবর জানিয়েছে।

ঘোষণা অনুসারে, সোমবার দুপুর থেকে বার, ক্লাব, জিমনেসিয়াম ও প্রার্থনালয় বন্ধ থাকবে। রেস্তোরাঁ ও ক্যাফে খোলা থাকলেও শুধু খাবার কেনা যাবে।

আজ রবিবার (২২ মার্চ) অস্ট্রেলীয় মন্ত্রিপরিষদের এক বৈঠক শেষে মরিসন দেশজুড়ে শাটডাউনের ঘোষণা দেন। দেশটিতে গত কয়েক দিনে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে শুরু করেছে। রবিবার পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ায় আক্রান্তের সংখ্যা ১ হাজার ৩১৫ জনে পৌঁছেছে। মৃত্যু হয়েছে ৭ জনের।

সবচেয়ে বেশি আক্রান্তের সংখ্যা নিউ সাউথ ওয়েলসে। এখাতে ৫৩৩ জন আক্রান্ত হয়েছেন। রাজধানী মেলবোর্নে আক্রান্ত হয়েছেন ২৯৬ ও কুইন্সল্যান্ডে ২৫৯ জন।

শাটডাউনের ফলে অনেক বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও সুপারমার্কেট, পেট্রোল পাম্প, ফার্মেসি ও হোম ডেলিভারি সেবা চালু থাকবে।

প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, তিনি চেয়েছিলেন স্কুল খোলা রাখতে কিন্তু অভিভাবকরা চাইলে সন্তানদের বাসায় রাখতে পারবেন। তিনি বলেন, আমি চাই না আমাদের সন্তানদের শিক্ষা জীবন থেকে একটি বছর হারিয়ে যাক। জনগণ নির্দেশনা না মানায় শাটডাউন জারি করা হয়েছে। কিন্তু আমরা জনগণকে লকডাউন ও নিজ ঘরে অবরুদ্ধ করছি না।