‘ঝুঁকিপূর্ণ ভবন শনাক্ত করে ভেঙে ফেলা হবে’

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, রাজধানীতে ঝুঁকিপূর্ণ ভবন শনাক্তের কাজ চলছে। শনাক্ত হওয়ার পর এগুলো ভেঙে ফেলা হবে। প্রথমে এ ভবনগুলো ভাঙার জন্য মালিকদের অনুরোধ করা হবে। তারা নিজেরা না ভাঙলে সরকারের পক্ষ থেকে ভেঙে ফেলা হবে।

আজ সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে রাজউকের ১১টি উইংয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে একটি প্রকল্পের বিষয়ে আলোচনা শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশ দুর্যোগপ্রবণ দেশ উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন,বাংলাদেশ দুর্যোগপ্রবণ দেশ, দুর্যোগ আসবেই। সেই দুর্যোগ মোকাবিলা করে যেকোনো অনাকাঙিক্ষত মৃত্যু ঠেকাতে হবে আমাদের।


ইনসাফ সাংবাদিকতা কোর্স

ইনসাফ সাংবাদিকতা কোর্সদেশের প্রথম ইসলামী ঘরানার অনলাইন পত্রিকা ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকমের আয়োজনে শুরু হতে যাচ্ছে স্বল্পমেয়াদী সাংবাদিকতা কোর্স।অংশগ্রহণ করতে যোগাযোগ করুন এই নাম্বারে-০১৭১৯৫৬৪৬১৬এছাড়াও সরাসরি আসতে পারেন ইনসাফ কার্যালয়ে।ঠিকানা – ৬০/এ পুরানা পল্টন ঢাকা ১০০০।

Posted by insaf24.com on Monday, October 29, 2018


‘নির্বাচন বাতিলের এজেন্ডা থাকলে প্রধানমন্ত্রীর সংলাপে অংশ নেবে ঐক্যফ্রন্ট’
জানুয়ারি ১৪, ২০১৯
ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


ফাইল ছবি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সংলাপে গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বাতিল বিষয়ক এজেন্ডা থাকলে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট অংশ নেবে বলে জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সোমবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুরে সিলেটে হজরত শাহজালাল রহঃ এর মাজার জিয়ারত শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এমন ইঙ্গিত দেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বালাগঞ্জ উপজেলায় নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ছাত্রদল নেতা সায়েমের পরিবাবের খোঁজখবর নিতে সিলেটে গেছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা।

মির্জা ফখরুল বলেন, একাদশ সংসদ নির্বাচনের পর প্রধানমন্ত্রী আবার সংলাপের ডাক দিয়েছেন। তবে সংলাপের এজেন্ডা কী হবে সেটা জানানো হয়নি। এজেন্ডায় যদি বিগত নির্বাচন বাতিল করে নিরপেক্ষ সরকারের অধীন নির্বাচনের বিষয় থাকে তাহলে আমরা সংলাপ নিয়ে চিন্তা ভাবনা করব। কারণ নির্বাচনের আগে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে যে সংলাপ হয়েছিল তা অর্থবহ হয়নি।

উল্লেখ্য, রবিবার (১৩ জানুয়ারি) আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আবারো সংলাপে বসবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, যাদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছিলো খুব শিগগিরই তাদেরকে চিঠি দিয়ে আমন্ত্রণ জানাবেন প্রধানমন্ত্রী। তারা যদি গণভবনে আসেন তাহলে তো সামনা-সামনি তাদের আমরা অনুরোধও করতে পারি সংসদে আসার জন্য।